মিরপুর স্টেডিয়ামে হঠাৎ লড়াই

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ হঠাৎ কেউ মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ওই সময়টাতে ঢুকে পড়লে আঁতকেই উঠতেন। এ কি? এমন যুদ্ধ যুদ্ধ অবস্থা কেন? ক্রিকেট মাঠেই বা কেন এমন অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত কমান্ডো বাহিনী লড়ছে? হেলিকপ্টার থেকে নেমে আসছেন কেউ কেউ। একদিকে ব্যাকআপ তো অন্যদিকে আরেক দলের নিশানা। অদৃশ্য শত্রুর বিরুদ্ধে এ কোন লড়াই কমান্ডোদের? বৃহস্পতিবার দুপুরে মিনিট কয়েকের এই কমান্ডো লড়াই আসলে পুরোপুরি মহড়া এক। এখানেই ২৭ আগস্ট শুরু অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট। সন্ত্রাসী হামলা হলে কিভাবে শত্রুমুক্ত করেতে হবে, খেলোয়াড় এবং সবাইকে রাখতে হবে নিরাপদ তারই সফল মহড়া ছিল এটি।

বাংলাদেশ দলের ক্যাম্প এখন মূল স্টেডিয়ামেই। তাদের ব্যস্ততার মাঝেই হঠাৎ দেখা যায় মাথার ওপর হেলিকপ্টার। উড়ন্ত হেলিকপ্টার থেকে নেমে আসছে একটি দল। স্টেডিয়ামের এই গেট ওই গেট থেকে ঠুকে পড়ছেন আরো সুসজ্জিত সতর্ক সেনারা। জীবনের ঝুঁকি নিয়েই জীবন বাঁচানোর লড়াই এই কমান্ডোদের। হঠাৎ সন্ত্রাসী হামলা হলে কিভাবে সামলাতে হবে পরিস্থিতি, রুখতে হবে, মুক্ত করতে হবে এই মাঠে তারই ডেমো হয়ে গেলো। আক্রান্তদের উদ্ধারের মহড়াও চলেছে এই লড়াইয়ে। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ডের দুই সদস্যের নিরাপত্তা দলও মাঠে থেকে দেখেছে এই মহড়া।

মেজর রোকনুজ্জামানের নেতৃত্বে সেনাবাহিনীর এই মহড়া হলো। দুপুর ১২টার পর কয়েক মিনিটের মধ্যেই শুরু ও শেষ। ১ নম্বর প্যারা-কমান্ডো ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে. কর্নেল এম এম ইমরুল হাসান পরে জানালেন, বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সিরিজে নিরাপত্তা দিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করা বাহিনী পুরো তৈরি। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করা বাহিনীর সাথে সেনাবাহিনীও কাজ করবে বলে জানালেন তিনি। তারা সবসময় এমন প্রস্তুত থাকেন বলেও জানালেন।

শুক্রবার রাতে স্টিভেন স্মিথের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়া দল পা রাখছে ঢাকায়। বাংলাদেশে দুই টেস্টের সিরিজ খেলতে আসছে তারা। নিরাপত্তা ইস্যুতেই আগে একবার সিরিজ স্থগিত করেছিল তারা। এবার তারা ২২-২৩ আগস্ট দুদিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে। এরপর বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ২৭ আগস্ট শুরু মিরপুরের শেরে বাংলায়। আর দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচটি ৪ সেপ্টেম্বর থেকে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.