উখিয়ার সন্তান মোহনের পিএইচডি লাভ

ওয়ান নিউজঃ উখিয়া (কক্সবাজার) উপজেলার রত্নগর্ভা মা মাধুরী দাশ ও শিক্ষক পিতা অরুন কান্তি দাশের কৃতি সন্তান মোহন কুমার দাশ তাঁর ” ডাটা এসিমিলেশন এন্ড সিমুলেশন অব মেসোস্কেল কনভেকটিভ সিস্টেমস এসোসিয়েটেড উইথ স্কোয়ালস” অভিসন্ধর্ভের জন্য ডক্টর অব ফিলোসফি (পিএইচ ডি) ডিগ্রি লাভ করেন। বায়ুমণ্ডলীয় পদার্থবিজ্ঞানে উচ্চতর গবেষণার জন্য তাঁকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ থেকে পিএইচ ডি ডিগ্রি প্রদান করা হয়।

তাঁর গবেষণার তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের বর্তমান চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মো: আব্দুল মান্নান চৌধুরী। যুগ্ম-তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন ইন্ডিয়া মিটিওরোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট ও নাসার প্ৰাক্তন বিজ্ঞানী প্রফেসর ড. সোমেশ্বর দাশ। গবেষণা তত্ত্বাবধায়কগণ, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর ও সার্ক আবহাওয়া গবেষণা কেন্দ্রের প্রাক্তন পরিচালক ও বিজ্ঞানী ড. সমরেন্দ্র কর্মকার এবং বিজ্ঞানী সুজিত কুমার দেবশর্মা মহোদয়গণের সার্বিক প্রেরণা ও পথ নির্দেশনায় বাংলাদেশে প্রথম এ ধরণের গবেষণা সম্ভব হয়েছে।

ড. মোহন কুমার দাশ তাঁর গবেষণায় অত্যাধুনিক ডাটা এসিমিলেশন পদ্ধতিতে রাডার ও উচ্চস্তরের বায়ুমন্ডলীয় ডাটা গাণিতিক ওয়েদার প্রেডিকশন সিস্টেমে ব্যবহার করে বজ্রঝড়, কালবৈশাখী, টর্নেডো, সাইক্লোন এর সময়মতো ও নিখুঁত পূর্বাভাস প্রদানে সক্ষম ও যুগোপযোগী কৌশল উদ্ভাবন করেছেন। এটির যথাযথ প্রয়োগ জীবন ও সম্পদ রক্ষা এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

তিনি সোনাইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও জালিয়া পালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা সম্পন্ন করেন। মাধ্যমিক শিক্ষার শুরু পালং বহুমুখী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে। মরিচ্যা পালং উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস এস সি ও কক্সবাজার সরকারি কলেজ থেকে এইচ এস সি পাস করেন।

তিনি কর্মজীবনে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর, সার্ক আবহাওয়া গবেষণা কেন্দ্রে কর্মরত ছিলেন। বর্তমানে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) এর পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউটে গবেষণা ফেলো হিসেবে কর্মরত আছেন।

ড. দাশের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক গবেষণা প্রবন্ধ খ্যাতনামা আন্তর্জাতিক জার্নালে প্রকাশিত। টর্নেডো গবেষণার কাজে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ তিনি আমেরিকা জিওফিজিকাল ইউনিয়নের (এজিও) ফেলো মনোনীত হয়েছেন। আমেরিকা জিওফিজিকাল ইউনিয়নের পক্ষ থেকে ২০১৩ সালে তাঁকে গবেষণা উপস্থাপনের জন্য সানফ্রান্সিসকো আমন্ত্রণ জানানো হয় যা আমেরিকার ‘জিওম্যাটিক্স, ন্যাচারাল হ্যাজার্ডস এন্ড রিস্ক’ জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

এছাড়াও তিনি আবহাওয়া ও জলবায়ু বিজ্ঞানে ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর, ভারত, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ায় উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। তিনি তাঁর গবেষণালব্দ ফলাফল জার্মানি, চীন, শ্রী লংকা, নেপাল, বেলজিয়াম, ফ্রান্স, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড প্রভৃতি দেশে উপস্থাপনের সুযোগ অর্জন করেছেন। তিনি ‘পিউর এন্ড অ্যাপ্লায়েড জিওফিসিক্স’ জার্নালের সম্মানিত রিভিউয়ার। তিনি বাংলাদেশ ফিজিক্যাল সোসাইটি, নোয়ামির আজীবন সদস্য।

ড. মোহন কুমার দাশ তাঁর সকল শুভাকাঙ্ক্ষীর প্রতি শ্রদ্ধার সাথে ঋণ স্বীকার করেছেন। তিনি সকলের দোয়া প্রত্যাশী।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.