ভেতরে গ্রেনেড হাতে জঙ্গি তানভীর কাদেরীর ছেলে

ওয়ান নিউজঃ রাজধানীর দক্ষিণখানে আশকোনার জঙ্গি আস্তানা থেকে চারজন বেরিয়ে এসে আত্মসমর্পণ করলেও এখনো সেখানে তিনজন অবস্থান করছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে এ কথা জানান ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।
তিনি বলেন, আমরা তাদের জীবিত ধরার চেষ্টা করছি। তাদেরকে আত্মসমর্পণের জন্য আহ্বান জানিয়েছি। এখানে থাকা জঙ্গিদের মধ্যে আজিমপুরে জঙ্গি আস্তানায় অভিযানে নিহত তানভীর কাদরীর ছেলে আবিরও রয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এদের কাছে প্রচুর এক্সপ্লোসিভ (বিস্ফোরক) ও সুইসাইডাল ভেস্ট রয়েছে।
ডিএমপি কমিশনার আরো বলেন, জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানাই। সেই আহ্বানে সাড়া দিয়ে দুই নারী জঙ্গিসহ চারজন আত্মসমর্পণ করেছে। বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর জন্য এটা অনেক বড় সফলতা।
ঘটনাস্থলে থাকা উত্তরা ফায়ার সার্ভিসের জ্যেষ্ঠ স্টেশন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, যারা ভেতরে আছে তাদের অত্মসমর্পণ করতে বলা হচ্ছে। কিন্তু তারা ভেতর থেকে বলছে, তাদের শরীরে গ্রেনেড বাঁধা আছে, গ্রেফতারের চেষ্টা করলে বিস্ফোরণ ঘটাবে।
এদিকে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জঙ্গি নেতা জাহিদের স্ত্রী জেবুন্নাহারসহ চারজন পুলিশের কাছে ধরা দিয়ে জানান, ভেতরে এখনও দুই নারী এবং একজন পুরুষ রয়েছেন।
শনিবার ভোররাত থেকে আশকোনার তিন তলা বাড়ি সূর্যভিলায় অভিযান চালাচ্ছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারাও রয়েছেন সেখানে।
গুলশান হামলার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় ১০ সেপ্টেম্বর রাজধানীর আজিমপুরের একটি বাড়িতে অভিযানের সময় টিকতে না পেরে তানভীর আত্মহত‌্যা করেন বলে পুলিশ জানায়। এছাড়া তানভীর কাদেরীর স্ত্রী আবেদাতুল ফাতেমা ওরফে খাদিজা এবং তার জমজ ছেলের একজন আজিমপুরের ওই অভিযানের সময় আহতাবস্থায় গ্রেফতার হন।

Comments are closed.