কক্সবাজার বিমানবন্দর এলাকার ৮৩০টি পরিবার উচ্ছেদে নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
কক্সবাজার বিমানবন্দর সংলগ্ন ফদনার ডেইল এলাকায় বসবাসরত ৮৩০টি পরিবারকে উচ্ছেদে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি শহিদুল করিমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
শনিবার (৮ আগস্ট) আদেশের বিষয়টি জানিয়েছেন রিটকারী আইনজীবী কেএম সগীর।

তিনি জানান, এ সংক্রান্ত রিটের পরিপ্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার আদালত নিষেধাজ্ঞার আদেশ দিয়েছেন। নিয়মিত আদালত খোলার দুই সপ্তাহ পর্যন্ত উচ্ছেদে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, এসি ল্যান্ড, এয়ারপোর্ট ম্যানেজার, সিভিল এভিয়েশন ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দিয়েছেন।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেছেন আইনজীবী আওসাফুর রহমান বুলু। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন তুষার কান্তি রায়। ১৯৯১ সালের প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে কুতুবদিয়ায় ইউসুফের ঘরবাড়ি বিলীন হয়ে যায়। এরপর হাজার হাজার মানুষের সঙ্গে আশ্রয় জোটে কক্সবাজার বিমানবন্দর লাগোয়া সমুদ্রতীরবর্তী এলাকায়।
সম্প্রতি এসব এলাকায় উচ্ছেদের জন্য তোরজোর শুরু হলে গত ৫ আগস্ট হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন কুতুবদিয়া ভূমিহীন সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি মোজাফফর আহমদ সিকদার। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন।
রিটকারী মোজাফ্ফর আহমদ জানান, ১৯৯১ সালে ভয়ংকর ঘুর্ণিঝড়ের পর ঘরবাড়ি হারিয়ে আমরা আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করি। এরপর এখান থেকে আমাদের উচ্ছেদ করতে গেলে আমরা হাইকোর্টে রিট দায়ের করি। এর পরিপ্রেক্ষিতে আদালত এক আদেশে আমাদের পুনর্বাসন না করে উচ্ছেদে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলেন। কিন্তু এরপর আর আমাদের পুনর্বাসন করা হয়নি। বরং উচ্ছেদের জন্য কয়েক দফা চেষ্টা করা হয়। পরে আমরা আদালত অবমাননার অভিযোগ দায়ের করি। এর মধ্যে সম্প্রতি নতুন করা পুনর্বাসন কেন্দ্রে আমাদের মধ্য থেকে মাত্র ১২২ পরিবারকে পুনর্বাসনের উদ্যোগ নিয়ে বাকিদের উচ্ছেদের প্রস্তুতি নেওয়া হয়। ফলে আমরা হাইকোর্টে রিট দায়ের করি। আদালত ওই রিটের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

Comments are closed.