শৈলকুপায় এবার মামলা তুলতে দুবৃর্ত্ত কর্তৃক বাদীর বেগুন গাছ উপড়ে সাবাড় ! হতাশ কৃষক প্রশাসন নীরব !

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় মামলা না তুলে নেওয়ায় বাদীর ধরন্ত বেগুন গাছ উপড়িয়ে ফেলেছে আসামীরা। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার রাতে উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়নের নবগ্রামে।

 

এ ঘটনায় এলাকাজুড়ে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। প্রান ভয়ে গ্রাম ছাড়া রয়েছে বাদী পক্ষের লোকজন।

বাদী আকব্বর জানান, গত কয়েক মাস পূর্বে সারুটিয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান মামুনের লোকজন প্রতিপক্ষ মান্নান মেম্বারের সামাজিক দলের কর্মী নবগ্রামের ঝড়– বিশ্বাসের কাছে একই গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর, লিয়াকত আলীর ছেলে চান্নু ও লিটন, সৈয়দ আলীর ছেলে কিনান ও বিরাজ উদ্দিন এবং মনোহারের ছেলে জাফর ৮০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে।

 

উপায়ন্ত না পেয়ে ঝড়–র পরিবার তাদেরকে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে বাধ্য হয়। বাকী টাকা দিতে বিলম্ব হওয়ায় তাদের পরিবারের উপর চাঁদাবাজরা হামলা চালিয়ে আহত করে।

 

এ ঘটনায় বাদী হয়ে ঝড়– বিশ্বাসের বড় ভাই আকব্বর শৈলকুপা থানায় চাঁদাবাজী মামলা দায়ের করে।

এরপর থেকেই শুরু হয় বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন। নির্যাতনের অংশ বিশেষ বাড়িতে অবরুদ্ধ করে রাখা, হামলা, ক্ষেতের ফসল বিনষ্টসহ বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি ও রাতের আধারে হাস মুরগিসহ গবাদী পশু জোরপুর্বক বাড়ী থেকে নিয়ে যায় প্রতিপক্ষরা।

 

সর্বশেষ গত রবিবার রাতে মামলার বাদী আকব্বরের ১৪ শতক জমির ধরন্ত বেগুন গাছ উপড়িয়ে ফেলে আসামী পক্ষরা। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। সাধারণ মানুষের মধ্যে চাঁপা ক্ষোভ থাকলেও ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা।

 

এ বিষয়ে শৈলকুপা থানার ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

Comments are closed.