প্রাথমিক স্কুলে শিক্ষক বদলিতে অনিয়ম হলে ব্যবস্থা

ওয়ান নিউজঃ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক বদলিতে অনিয়ম ঘটলে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। রোববার (২২ জানুয়ারি) মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে এ নির্দেশনা জারি করা হয়।

মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয়-২ শাখা থেকে উপসচিব গোপাল চন্দ্র দাস স্বাক্ষরিত জারি করা আদেশে বলা হয়, ২০১৫ সালের নির্দেশনা নির্দেশিকার ১.১ অনুযায়ী বদলির সময়কাল নির্ধারিত রয়েছে। ওই সময় প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষকের বদলির পদ্ধতি এবং কর্মকর্তাদের দায়িত্ব বিন্যাস নির্দেশিকার ২.১ থেকে ২.৭ ধারায় সুস্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে।

আদেশে বলা হয়, অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে নির্দেশিকার দায়িত্ব বিন্যাস উপেক্ষা করে বদলির আদেশ জারি করা হচ্ছে। নির্দেশিকা অমান্য করে অনিয়ম ঘটলে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যা অনভিপ্রেত ও অনাকাক্সিক্ষত।

আদেশে আরও বলা হয়, ২০১৫ সালের নির্দেশিকার আলোকে ২.১ থেকে ২.৭ ধারা যথাযথ অনুসরণপূর্বক বদলির কাজ সম্পন্ন করা এবং এ সংক্রান্ত ফলোআপ বদলির আদেশ জারির সাত কর্মদিবসের মধ্যে মন্ত্রণালয়কে অবহিত করতে হবে। ফলোআপ দিতে ব্যর্থতা এবং বদলি প্রক্রিয়ায় কোনও অনিয়ম ঘটলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে, গত ৩ জানুয়ারি প্রাথমিক শিক্ষক বদলিতে মন্ত্রণালয়ের ক্ষমতা স্থগিত করা হয়। শিক্ষক বদলি স্থগিতের ওই নির্দেশনায় বলা হয়, অন্যান্য নির্দেশনার আলোকে একই উপজেলা/থানা, আন্তঃবিদ্যালয়, আন্তঃউপজেলা/আন্তঃথানা, আন্তঃজেলা, আন্তঃসিটিকরপোরেশন এবং আন্তঃবিভাগ বদলি করতে হবে।

Comments are closed.