আওয়ামী লীগে কোনো অপকর্ম সহ্য করা হবে না

ওয়ান নিউজঃ আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়লাভ করবে নেতাদের এমন প্রত্যাশা আওয়ামী লীগকে ডুবাবে মন্তব্য করে দলের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমাদের যদি আরেকবার ক্ষমতা হারাতে হয়, তাহলে ২০০১ থেকে ২০০৬ সালের চেয়ে ভয়ংকর অবস্থা হবে। তারা ভয়ংকর মূর্তি নিয়ে আবির্ভূত হবে। প্রাণে বাঁচতে পারবেন না।

রোববার দুপুরে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের অন্তর্গত ২০নং ওয়ার্ড (সাবেক ৫৬) যুবলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা আগামী নির্বাচনে জিতে গেছি এ আত্মসন্তুষ্টিই দলকে ডুবাবে। ভালোর জন্য আশা করতে হবে আর খারাপের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে, খারাপ কাজ করলে, খারাপ সময় আসলে, খারাপ কাজ যারা করছে তার সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে, আর তাদের সঙে ভালোরাও ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগে কোনো অপকর্ম সহ্য করা হবে না। পার্টি অফিসে ডেকে এনে চার-পাঁচজন সংসদ সদস্যকে সংশোধনের জন্য সতর্ক করা হয়েছে। পার্টির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয় এমন অপকর্ম বরদাস্ত করা হবে না। ঢাকা কলেজে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে সেতুমন্ত্রী বলেন, ঢাকা কলেজে অনেক দিন পর একটা অপকর্ম হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে অ্যাকশন শুরু হয়েছে, অপরাধিদের গ্রেফতার করা হয়েছে তখনই তাদের সংগঠন থেকে বহিস্কারও করা হয়েছে।

সরকার দলীয় লোক দিয়ে সার্চ কমিটি গঠন করা হলে জনগণ তা মেনে নেবে না খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি যা করেছে আওয়ামী লীগ তা করবে না। রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন রাষ্ট্রের অভিভাবক তিনি বিএনপি এবং আওয়ামী লীগের লোক দিয়ে ইসি গঠনে সার্চ কমিটি করবেন না। রাষ্ট্রপতি নিরপেক্ষ লোক দিয়েই ইসি গঠন করবেন। এটা আমরা রাষ্ট্রপতির কাছে দাবি করেছি। তিনি বলেন, বিএনপি নতুন নতুন আবদার নিয়ে আসছে। এটা তাদের মামা বাড়ির আবদার।

বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, সরকারের ইচ্ছায় নির্বাচন কমিশন গঠন করা হলে তা গ্রহণযোগ্য হবে না। খালেদা জিয়া আপনি যে আজিজ মার্কা (এম এ আজিজ) নির্বাচন কমিশন গঠন করেছিলেন সেই আজিজ কী বিএনপির লোক ছিলেন না! আপনি রাষ্ট্রপতির কাছে কে এম হাসানের নাম প্রস্তাব করেছেন, কে এই হাসান? সেই হাসান সাহেব বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, কোনটা নিরপেক্ষ! এটা কী নিরপেক্ষ। বিএনপি সাপোর্টার হলে তা কী পক্ষ না নিরপেক্ষ এমন প্রশ্নও রাখেন তিনি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের ২০ নং ওয়ার্ড সভাপতি সাইদুর রহমানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ সভাপতি ইসমাঈল চৌধুরী সম্রাট প্রমুখসহ যুবলীগের নেতাকর্মী।

Comments are closed.