প্রতারণা মামলায় যশোরের সাংবাদিকের বিরুদ্ধে চার্জশিট

ইয়ানুর রহমান, যশোর : বহুলালোচিত পদ্মা সেতুতে শ্রমিক নিয়োগের প্রতারণা মামলায় সাংবাদিক হাবিবুল্লাহ হাবিবকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দিয়েছে যশোরের সিআইডি পুলিশ। মামলার তদন্ত শেষে এ চার্জশিট দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) জাকির হোসাইন।

শনিবার যশোর আদালতের কোর্ট পুলিশের দফতরে এ চার্জশিট জমা হয়েছে। হাবিব শহরের বারান্দী-মোল্লাপাড়ার মৃত মোস্তাক আহম্মেদের ছেলে।

মামলার বিবরণ মতে, আসামি হাবিবুল্লাহ হাবিব সাংবাদিক পেশায় নিয়োজিত। তার শহরের মনিহার সিনেমা হলের পূর্ব পাশে নিজস্ব অফিস রয়েছে। তিনি পদ্মাসেতু প্রকল্পে শ্রমিক পদে ১২ হাজার টাকা বেতনে লোক নিয়োগ দেয়ার প্রলোভন দেখান।

হাবিবুল্লাহ হাবিব জেলার বিভিন্ন গ্রামের ১৫০ জনের কাছ থেকে প্রাথমিকভাবে ৮ হাজার টাকা করে মোট ১২ লাখ টাকা নেন। এরপর তিনি তাদের পদ্মা সেতুতে চাকরি না দিয়ে ঘোরাতে থাকেন। ২০১৫ সালের ২০ অক্টোবর সকালে হাবিবের বাড়িতে টাকা ফেরত চাইতে গেলে না দিয়ে হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেন।

এ ব্যাপারে প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি বরাবর অভিযোগে দেয়া হয়। প্রেসক্লাবে অভিযোগ দিয়ে কোনো ফল না হওয়ায় ২৬ অক্টোবর যশোর র‌্যাব ক্যাম্পে অভিযোগ দেন ভুক্তভোগীরা। এদিন বিকেলে র‌্যাব সদস্যরা হাবিবের অফিসে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক ও ১৩৮টি ভুয়া নিয়োগপত্র ও ২৭টি ছাবিসহ জীবন বৃন্তান্ত উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে শহরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের মৃত ইয়াসিন আলীর ছেলে শামীম পারভেজ মিন্টু বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় প্রতারণার অভিযোগে একটি মামলা করেন। মামলাটি প্রথমে থানা পুলিশ ও পরে সিআইডি পুলিশ তদন্তের দায়িত্ব পায়। এ মামলার তদন্ত শেষে আটক আসামির দেয়া তথ্য ও স্বাক্ষীদের বক্তব্যে ঘটনার সাথে জড়িত থাকায় আসামি হাবিবুল্লাহ হাবিবকে অভিযুক্ত করে আদালতে এ চার্জশিট দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

Comments are closed.