টাইগারদের জন্য সিরিজ বাঁচা-মরার লড়াই।

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ ৪টি পরিবর্তন নিয়ে খেলতে নামা। দুজনের অভিষেক। আর এই অবস্থায় নিউজিল্যান্ডের সিমিং কন্ডিশনে ব্যাট করতে নামা। শঙ্কার কালো মেঘ নিশ্চয়ই খুব উড়াউড়ি করছিল টাইগার ভক্তদের মনের আকাশে। কিন্তু ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে কামব্যাক করে সৌম্য সরকার সেঞ্চুরির কাছাকাছি পৌঁছে গেলেন। সাকিব আল হাসান করলেন ফিফটি। আর দুই অভিষিক্তের ব্যাটেও প্রতিরোধের গল্প মিলল। আর তাতে প্রথম দিনের গল্পটা খুব খারাপ এগুচ্ছে না। চা বিরতি থেকে ফিরে অবশ্য অভিষিক্ত নাজমুল হোসেন শান্তকে হারিয়ে ফেলতে হয়েছে। শুক্রবার স্বাগতিকদের বিপক্ষে শুরু টেস্টে দিনের শেষটা কি হবে বোঝা যাচ্ছে না। তবে এই রিপোর্ট লেখার সময় প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেটে ২৪৭ রান বাংলাদেশের। যেখানে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান বলতে শুধু তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ আর সাকিব আল হাসান, সেখানে প্রথম ইনিংসে এই স্কোর খারাপ বলার উপায় নেই। এখনো বাকি দিনের প্রায় দেড় সেশনের বেশি খেলা। নুরুল হাসান ৩৬ ও মেহেদী হাসান মিরাজ ৯ রানে ব্যাট করছেন।

এর আগে ক্রাইস্টচার্চে টস হারার মধ্য দিয়ে অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হয়েছে তামিম ইকবালের। মুশফিকুর রহীমের ডেপুটি সাদা পোশাকে অধিনায়কত্বের শুরুটা অবশ্য স্মরণীয় করে রাখতে পারলেন না। ব্যাটিংয়ের প্রথম ইনিংসটা ৫ রানেই থেমেছেন। টিম সাউদির বলে উইকেটের পেছনে বিজে ওয়েটলিংকে ক্যাচ দিয়ে তামিম।

পরে ট্রেন্ট বোল্টের বলে ওয়েটলিংকেই ক্যাচ দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৩ চারে ২৪ বলে ১৯ রানে ফিরেছেন প্রথমবার তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান।

সৌম্যর সর্বসাকুল্যে অভিজ্ঞতা ছিল মাত্র তিন টেস্ট খেলার। যার শেষটি ২০১৫ সালের জুনে, ফতুল্লায় ভারতের বিপক্ষে। ক্রাইস্টচার্চে চতুর্থ টেস্টে নামার আগে সাদা পোশাকে ছিল না কোনো ফিফটি। মাঝে রান খরায় দুঃসময় আর চাপের মধ্যে অনেকগুলো দিন কেটে গেছে। কিন্তু আত্মবিশ্বাস হারাননি। দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি দিয়েই হয়তো তাই ধূসর সাম্প্রতিককে পেছনে ফেলার সংকল্প ছিল। সেটি হয়নি ৮৬ রানে ফিরে যাওয়ায়। বোল্টের বলে গ্র্যান্ডহোমকে ক্যাচ দিয়ে যার ইতি ঘটেছে। ফেরার আগে ১১ চারে ১০৪ বলে ঝলমলে ইনিংস খেলেছেন বাঁহাতি সৌম্য।

দুর্দান্ত ইনিংসটির পথে সাকিব আল হাসানকে নিয়ে ১২৭ রানের জুটিতে প্রতিরোধ গড়েছিলেন সৌম্য। তার ফেরার পর বেশিক্ষণ টেকেননি সাকিবও। সাউদির বলে ওয়েটলিংকে ক্যাচ দিয়েছেন ওয়েলিংটন টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো এই বাঁহাতি। ৯ চারে ৫৯ রানে থেমেছেন তিনি।

সাকিবের ফেরায় অবশ্য বিপদেই পড়ে বাংলাদেশ। তার আর সৌম্যর ফেরার মাঝখানে যে ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে ব্যর্থ হয়েছেন সাব্বির রহমান (৭)। সাব্বির-সাকিবের বিদায়ের পর ষষ্ঠ উইকেটে দুই অভিষিক্ত নুরুল হাসান ও নাজমুল হোসেন ৫৩ রানের জুটি গড়লেন। ইনিংসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জুটি। চা বিরতি থেকে ফিরেই অবশ্য টিম সাউদির বলে ১৮ রান করা নাজমুলকে ফিরতে হয়।

সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে আগের ম্যাচের সঙ্গে একাদশে চারটি পরিবর্তন নিয়ে নেমেছে বাংলাদেশ। চোটে পড়া মুশফিকুর রহীমের পরিবর্তে খেলছেন অভিষিক্ত নুরুল হাসান সোহান, ইমরুল কায়েসের জায়গায় একাদশে ফিরেছেন সৌম্য সরকার, আর মুমিনুল হকের পরিবর্তে অভিষেক হয়েছে তরুণ ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্তর। সেইসঙ্গে শুভাশিষ রায়ের জায়গায় একাদশে সুযোগ মিলেছে পেসার রুবেল হোসেনের।

ওয়েলিংটনে প্রথম টেস্টে জিতে সিরিজে এগিয়ে আছে স্বাগতিক কিউইরা। দ্বিতীয় ম্যাচটি তাই সফরকারী টাইগারদের জন্য সিরিজ বাঁচা-মরার লড়াই। তাতে অনভিজ্ঞ এক দল নিয়েই নেমেছেন তামিম ইকবাল।

Comments are closed.