ঘুষ নিয়ে মাদক বিক্রেতাকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ

ইয়ানুর রহমান : যশোরের ঝিকরগাছা থানা পুলিশের বিরুদ্ধে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা নিয়ে শাহাদৎ হোসেন নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। শাহাদৎ হোসেন ঝিকরগাছা উপজেলার টাওরা গ্রামের জোহা মোড়লের ছেলে।

 

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, ঝিকরগাছা থানার এএসআই সরজিৎ এবং এএসআই আনিসুর রহমান শনিবার বিকেলে বেজিয়াতলা নারাঙ্গালীর মোড় থেকে ২শ’ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ শাহাদৎ হোসেনকে আটক করেন। এরপর তাকে থানায় নিয়ে গিয়ে দেনদরবার করেন।

 

স্থানীয় কিছু লোকজন শাহাদৎ হোসেনকে ছেড়ে দেয়ার জন্য তদবির করে। এই সুযোগে এএসআই আনিস এবং এএসআই সরজিৎ তাদের কাছে ২ লাখ টাকা দাবি করেন। শনিবার রাতভর এবং রবিবার সকালে তদবির করে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা নিয়ে শাহাদৎ হোসেনকে ছেড়ে দেয়া হয়।

 

সূত্রটি জানিয়েছে, ঝিকরগাছা থানার ওসি আবু সালেহ মাসুদ করিম বিষয়টি জানেন। ওই টাকার বড় একটি অংশের ভাগ তিনি পেয়েছেন। এ নিয়ে রবিবার রাতে মোবাইল ফোনে সাংবাদিকদের কথা হয় ওসি আবু সালেহ মাসুদ করিমের সাথে। টাকার বিনিময়ে ইয়াবাসহ আসামি ছেড়ে দেয়ার খবর তিনি জানেন কি-না জানতে চাইলে বলেন, আমি ঘটনাটি জেনে তারপর বলতে পারবো।

 

এ বিষয়ে এএসআই সরজিতের কাছে ফোন করা হলে তিনি প্রথমে বলেন, ঘটনাটি সঠিক নয়। কী সঠিক নয়? জানতে চাইলে তিনি ঝিকরগাছা থানায় উপস্থিত এক সাংবাদিকের কাছে মোবাইল ফোনটি ধরিয়ে দেন। পরে তিনি ফোন নিয়ে বলেন, শাহাদৎ হোসেন নামে কোনো আসামি আটক করা হয়নি। টাকা নিয়ে আসামি ছেড়ে দেয়ার ঘটনা সঠিক নয়।

 

এরপর এএসআই আনিসের কাছে মোবাইল করা হয়। কিন্তু তিনি ফোন রিসিভ করেননি। রাত ৮টার দিকে সরজিতের বন্ধু পরিচয়দানকারী এক ব্যক্তি সাংবাদিককে নিউজ না লিখতে অনুরোধ করে বলেন, এক লাখ ৩০ হাজার টাকা নয়, মাত্র ৩০ হাজার টাকা। তাও আবার ওসি বেশির ভাগ নিয়ে নিয়েছে।

Comments are closed.