প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও বক্তব্য

গতকাল থেকে কয়েকটি স্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আমার নামে (ছানাউল্লাহ) যে সকল অপপ্রচার চালানো হচ্ছে তা আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। উক্ত সংবাদ গুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমি এসব মিথ্যা অপপ্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি প্রশাসনসহ সর্বস্তরের মানুষের প্রতি এই সব মিথ্যা বানোয়াট সংবাদে বিব্রত না হওয়ার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

মাত্র পাঁচশত টাকা খরচ করলেই যে কাউকে সন্ত্রাস, ইয়াবা ব্যবসায়ী, ইয়াবা খোর, মানব পাচারকারী, ইত্যাদি অপরাধী বানানো যায় অনলাইন নিউজ পোর্টালের মাধ্যমে। কিন্তু কেন? অনলাইন নিউজ পোর্টাল কি আইনের ঊর্ধ্বে? এদের কি কোন জবাবদিহিতা নেই?
সাংবাদিকতার মত মহৎ পেশাকে কলঙ্কিত করছে কিছু নামধারী সাংবাদিক, ব্যাঙের ছাতার মত অনলাইন নিউজ পোর্টাল খুলে। একজন প্রকৃত সাংবাদিক কখনো তদন্ত বিহীন ও অভিযুক্তদের বক্তব্য ছাড়া, এহেন মিথ্যা বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন করতে পারেনা।

ভিজা-সুপারি বিক্রয়ের বকেয়া টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে আমার ছোট ভা্ই ও সুপারি বিয়ারি সোলতানের মধ্যে মারামারি হয়েছে।এখানে আমি (সানাউল্লাহ) কোত্থেকে আসলাম? আমি সারাদিন কক্সবাজার আমার অফিসে ব্যস্থ ছিলাম।যা আমার অফিস ডকুমেন্ট বলবে। বিকালে জানতে পারলাম আমার ছোট ভাইয়ের সাথে সুপারি ব্যবসায়ী সোলতানের সাথে মারামারি হয়েছে।কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য সোলতান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলছে, আমি ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে থেকে আমার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে তাকে (সোলতান) মারধর করেছি।আমি উক্ত বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

এলাকার মানুষ ভাল করে জানে, আমি কোন সন্ত্রাসও নয় এবং কোন সন্ত্রাসীও লালন করি না এবং কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে কখনও নিজেকে সম্পৃত্ত করিনি।আমি যদি সন্ত্রাসী বা সন্ত্রাসী বাহিনী লালন করলে জালিয়াপালং উচ্চ বিদ্যালয় তথা বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে সম্পৃত্ত থেকে বিভিন্ন সামাজিক দায়িত্ব পালন করতে পারতাম না।

আসলেই জালিয়া পালং তথা সোনাইছড়িতে কোন সমস্যা/ ঘটনা হলেই কিছু অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও কিছু অসাধু ব্যক্তি সামাজিক মাধ্যমে আমার নাম ব্যবহার করে তারা মজা পায়, যা অত্যন্ত দুঃখজনক।আরও মজার ব্যাপার হলো সাথে আবার ইয়াবা কারবারী ও মানব পাচারকারীও হয়ে যায়।

উল্লেখ্য, সোলতান সাহেবের অতি বাড়াবাড়ি ও গালবাজির কারণে মারামারি হয়েছে।একজন আরেকজনের সাথে হাতাতি থেকে মারামারি হয়েছে বলে এলাকাবাসী সূত্রে আমি জানতে পারি। তাই এই ঘটনাকে ভিন্ন ভাবে প্রবাহিত করার কোন মানে হয় না। কোন ঘটনা হলেই প্রতিশোধ নেওয়ার প্রধান হাতিয়ার হয়ে যায় ইয়াবা ট্যাবলেট! মিথ্যা প্রচারণা চালিয়ে প্রশাসনের চোখে ধুলো দিয়ে নিজের স্বার্থ হাসিলের অপচেষ্টা করার কোন মানে হয় না।

পরিশেষে সাংবাদিক ভাইদের প্রতি বিনয়ের সাথে অনুরোধ করছি মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন থেকে বিরত থাকুন।

প্রতিবাদকারীঃ
মোহাম্মদ ছানা উল্লাহ

Comments are closed.