দেশের অপরাধ নির্মূলে পুলিশ ও জনতার সেতুবন্ধনের বিকল্প নেই-এএসপি মতিউল

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :

‘পুলিশ জনতা, জনতাই পুলিশ’ এ প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে পুলিশ জনগণের বন্ধু এবং সেবক এই কথা গুলো তৃণমূল পর্যায়ে বাস্তবে প্রমাণ করতে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায় ১৮টি ইউনিয়নে বিট পুলিশিং কার্যক্রম আরও জোরদার করা হয়েছে। মানুষের দোরগোড়ায় পুলিশের সেবা পৌঁছাতে আইজিপির নির্দেশে প্রতিটি ইউনিয়নে এ বিট পুলিশ অফিসারের কার্যালয় স্থাপন করা হচ্ছে।
চকরিয়া থানা প্রশাসনের আয়োজনে বুধবার (৮জুলাই) বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির হলরুম মিলনায়তনে বিট পুলিশ কার্যালয় শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর প্রধান সমন্বয়ক মো.হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে ও বদরখালী পুলিশ ফাঁড়ির আইসি (এসআই) জাকির হোছাইনের সঞ্চলানায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মোহাম্মদ মতিউল ইসলাম।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্য বলেন, এলাকার প্রতিটি মানুষ বিভিন্ন ধরণের নানা সমস্যা নিয়ে থানায় যেতো। মানুষকে এখন আগের মতো থানায় গিয়ে আর ভোগান্তি বা হয়রানির শিকার হতে হবে না। বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে আমরাই মানুষের দোরগোড়ায় গিয়ে সেবা পৌঁছে দেবো। মানুষ অসহায় হয়েই পুলিশের কাছে সেবার জন্য আসে। তাই মানুষের সমস্যা জানার সঙ্গে সঙ্গে ইউনিয়নে দায়িত্বে থাকা সুনির্দিষ্ট বিট পুলিশ অফিসার তা নিরসন করবেন। আর এ বিট পুলিশ কার্যক্রমের সেবা নিশ্চিতে এবং এলাকার অপরাধ প্রবণতা নির্মূলে পুলিশ ও জনতার সেতুবন্ধনের বিকল্প নেই।
তিনি আরো বলেন, পুলিশের সাথে জনতার সেতুবন্ধন সৃষ্টি হলেই সমাজ ও দেশ থেকে মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিংসহ নানা অপরাধ নির্মূল করা সম্ভব। এছাড়া স্ব স্ব এলাকার দায়িত্বরত ব্যক্তিরা তাদের দায়িত্ব যথাযথ ও সঠিক ভাবে পালন করলে এলাকায় কোন ধরণের অন্যায় ও অপরাধ সংঘটিত হবেনা। এলাকার অপরাধী যে হউক না কেন কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। বিট পুলিশিংয়ের এই কার্যক্রম চকরিয়া উপজেলার ১৮টি ও পেকুয়ার সাতটি ইউনিয়নে চলবে।
উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খাইরুল বশর, আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরে হোছাইন আরিফ, বদরখালী সমবায় কৃষিও উপনিবেশ সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল আলম সিকদার, সহ-সভাপতি আলী মোহাম্মদ কাজল, সম্পাদক নুরুল আমিন জনি, বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সিকদার, বদরখালী ডিগ্রী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মনির হোসেন ভুইঁয়া। এতে উপস্থিত ছিলেন বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির পরিচালক, বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের ইউপিসদস্যবৃন্দ ও স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ।
পরে অলোচনা সভা শেষে বদরখালী ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে বিট পুলিশ অফিসারের এ কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়।

Comments are closed.