মানুষ আগে পুলিশের কাছে আসত, এখন আমরাই মানুষের দোরগোড়ায় গিয়ে সেবা দেবো- এএসপি মতিউল

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া :

পুলিশ জনতা-জনতাই পুলিশ, পুলিশ জনগণের বন্ধু এবং সেবক এই কথা গুলো বাস্তবে প্রমাণ করতে
কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায় বিট পুলিশিং কার্যক্রম আরও জোরদার করা হয়েছে। পুলিশ এবার মানুষের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছাতে আইজিপির নির্দেশে প্রতিটি ইউনিয়নে বিট পুলিশ অফিসারের কার্যালয় স্থাপন করা হচ্ছে। প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদের যে কোনো একটি কক্ষে হবে এই কার্যালয়।

বুধবার (১জুলাই) চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে বিট পুলিশ অফিসারের এ কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়। এই ইউনিয়নে দায়িত্ব পালন করবেন চকরিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মহসিন তালুকদার। তাকে সহযোগিতা করতে একজন সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ও একজন কনস্টেবল থাকবেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মোহাম্মদ মতিউল ইসলাম।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান ও ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আলহাজ গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী।

সহকারী পুলিশ সুপার কাজী মতিউল ইসলাম বলেন, মানুষ অসহায় হয়েই পুলিশের কাছে আসে। নানা সমস্যা নিয়ে মানুষ এতোদিন আমাদের (থানা) কাছে আসতেন। এখন বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে আমরাই মানুষের দোরগোড়ায় গিয়ে সেবা দেবো। মানুষের সমস্যা জানার সঙ্গে সঙ্গে ইউনিয়নে দায়িত্বে থাকা সুনির্দিষ্ট অফিসার তা নিরসন করবেন।
তিনি আরও বলেন, বিট পুলিশিংয়ের এই কার্যক্রম চকরিয়া উপজেলার ১৮টি ও পেকুয়ার সাতটি ইউনিয়নে চলবে। মানুষকে এখন থানায় গিয়ে আর ভোগান্তি বা হয়রানির শিকার হতে হবে না। আমরা নিজেরাই মানুষের কাছে গিয়ে সেবা দেবো। মুজিববর্ষে এটি হবে আমাদের অঙ্গিকার।

Comments are closed.