কক্সবাজার শহরে খোলেছে দোকানপাট, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে ব্যবসা

ইমাম খাইর, কক্সবাজার
বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সিদ্ধান্ত মতে কক্সবাজার শহরের দোকানপাট খোলেছে।
সামাজিক দূরত্ব বজায়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে ব্যবসা বাণিজ্য।
বুধবার (১ জুলাই) সকাল ১০ টা থেকে পর্যটন শহরের ছোট বড় সব মার্কেট খোলেছে।
তবে, দীর্ঘ প্রায় চার মাস পরে প্রথম দোকান খোলার খবরটি অনেকে জানে না। তাই ক্রেতা সমাগম তেমন হয় নি।
অভিজাত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেগা মার্টে কথা হয় আরজু নামক একজন ক্রেতার সঙ্গে।
তিনি বলেন, প্রায় চার মাস ধরে দোকানপাট বন্ধ। প্রয়োজনীয় ব্যবহারের সামগ্রী ফুরিয়ে গেলেও কিনতে পারি নি।। অনেক দিন প্রথম ঘরের বের হলাম। দোকান খোলার কারণে অনেক উপকার হয়েছে। বাচ্চাদের জন্য কাপড়চোপড় কিনতে পেরেছি।
মেগা মার্টের স্বত্বাধিকারী মোঃ জহিরুল ইসলাম বলেন, সরকারী নির্দেশনা মেনে দোকান খোলেছি। কর্মচারীরা মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস দেয়া হয়েছে। ক্রেতাদের জীবানু নাশক স্প্রে করে দোকানে ঢোকানো হচ্ছে। প্রথম দিন হওয়ায় তেমন ক্রেতা আসে নি।
বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি কক্সবাজার জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মুকুল বলেন, দীর্ঘ দিন লকডাউনের কারণে দোকানপাট বন্ধ থাকায় অনেকের মালামাল নষ্ট হয়ে গেছে। সমিতির সিদ্ধান্ত অনুসারে দোকান খোলেছে ব্যবসায়ীরা। প্রথম দিন হওয়ায় দোকান পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করতে সময় গেছে।
সকলেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে।
তিনি বলেন, সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত দোকান খোলা থাকবে।
উল্লেখ্য, গত ৫ জুন কক্সবাজার পৌর এলাকাকে ‘রেডজোন’ভুক্ত করে জেলা প্রশাসন।
জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেনের স্বাক্ষরে জারিকৃত নির্দেশনার আলোকে ৩০ জুন পর্যন্ত দুই দফায় টানা ২৫ দিন লকডাউন পালিত হয়।
এর আগে ২৫ মার্চ থেকে লকডাউন কক্সবাজার।
রবিবার ও বৃহস্পতিবার সপ্তাহে দুইদিন কাঁচাবাজার, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রীর জন্য খোলা রাখা হলেও অন্যান্য সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল।

Comments are closed.