কক্সবাজার পৌরসভার ১০ ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালাউদ্দীন সেতুর খোলা চিঠি

Shetu.jpg

ইব্রাহীম আজাদ বাবুঃ

কোভিড- ১৯ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কক্সবাজার পৌরসভার ১০ ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালাউদ্দীন সেতুর ফেসবুক স্ট্যাটাসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও জেলা শীর্ষ চার জনের উদ্দেশ্য আনুমানিক সকাল ১০ টায় তার ব্যাক্তিগত ফেসবুক আইডিতে স্ট্যাটাসের মাধ্যমে খোলা চিঠি প্রকাশ করছেন চিঠিতে করোনা আক্রান্ত রোগী হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর নিকট কারফিউ ঘোষণা দাবী জানান।

উল্লেখ্য, ১০ ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালাউদ্দীন সেতুর শারীরিক করোনা উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ বোধ করলে ২৩ মে করোনা পরীক্ষা করান ৫ দিন পর গত ২৮ মে রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

পাঠকের সুবিধার্থে কাউন্সিলর সেতুর খোলা চিঠি হুবুহু প্রকাশ করা হলোঃ

“মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,

ও কক্সবাজার জেলার চার জন দায়িত্ব শীল মানুষের প্রতি আমার খোলা চিঠি।

আসসালামু আলাইকুম।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আমি একজন করোনা রোগী হিসেবে আপনার কাছে হাত জোড় করে অনুরোধ করছি, দেশে কারপিউ ঘোষনা করুন। না হলে দেশে অনেক বড় ক্ষতি হবে। এই দেশ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের। এদেশের মানুষকে বাঁচান। এই দেশের মানুষের জন্য আপনার পরিবার অনেক ত্যাগ দিয়েছেন। এই দেশের মানুষ আপনাদের আপন জন তাদের বাঁচান।

পাশাপাশি কক্সবাজার জেলা প্রসাশক মহোদয়কে বলবো আপনি জেলা প্রধান আপনি চাইলে সম্ভব। যে মানুষ গুলো করোনা পরীক্ষা দিচ্ছে তাদের পরীক্ষার রিপোর্ট যেন ২৪ ঘন্টার মধ্যে পাই সে নির্দেশ দীন। না হলে কক্সবাজারের অবস্থা আরো খারাপ হবে। মাননীয় এমপি মহোদয় আপনি তো কক্সবাজারের চিকিৎসা ব্যবস্তাপনা কমিটির সভাপতি আপনি একটু তদারকি করুন।

আমরা সবাই আপনার আপন জন। আমরা না থাকলে আপনি কাকে নিয়ে এমপি হবেন। মাননীয় মেয়র মহোদয় আপনি ও কক্সবাজার চিকিৎসা ব্যবস্তাপনা কমিটির সদস্য। আপনি ও তদারকি করুন।

আপনি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, আপনার পুরো জেলা নিয়ে চিন্তা করতে হবে। না হলে আল্লাহর কাছে দায় থাকবেন। কক্সবাজারবাসীর জন্য আপনারা কিছু করুন।

মাননীয় পুলিশ সুপার মহোদয় আপনি একটু কঠোর হোন আপনি চাইলে সম্ভব। কক্সবাজারে প্রতিটি পাড়া মহল্লায় দিন রাত দোকান পাট খোলা রেখে মানুষ আড্ডা দিচ্ছে। আপনি চাইলে এক ঘন্টায় এগুলো বন্ধ হবে। আপনার প্রতি অনুরোধ নির্দেশ দীন আপনার পুলিশ সদস্যদের কটোরা হতে।

মাননীয় মেয়র মহোদয় আপনি সবার সাথে বসেন কঠিন সিদ্ধান্ত নিন। আপনি চাইলে সবাই বসবে, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, এমপি মহোদয়, জেলা প্রসাশক মহোদয়, পুলিশ সুপার মহোদয়, সাংবাদিক নেতা, সিভিল সার্জন সবাইকে নিয়ে বসেন সবাই মিলে কক্সবাজার বাসীকে বাঁচান। আপনারা কক্সবাজারের চালিকা শক্তি। আপনারা না চাইলে কক্সবাজার বাসীর অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে।

যদি আমার কথায় আপনারা কষ্ট পেয়ে থাকেন তাহলে আমাকে নিজের ছোট ভাই মনে করে ক্ষমা করে দিবেন। আমি এই লেখাটি রামু করোনা হাসপাতালের সিটে বসে লিখলাম।

সালাউদ্দিন সেতু
কাউন্সিলর
১০ নং ওয়ার্ড
কক্সবাজার পৌরসভা”