গর্জনিয়ায় জুমছড়ি ফোরকানিয়া মাদ্রাসা দখলের চেষ্টা

এমপি কমলের ফলক ভাংচুর
received_2530176190564149.jpeg

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের জুমছড়ি এলাকায় জুমছড়ি ফোরকানিয়া মাদ্রাসার জমি  দখলের চেষ্টা এবং বর্তমান সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমলের দেয়া ফলক ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।  ফোরকানিয়া মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৪ সালে। প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন, সাবেক সাংসদ মরহুম ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরী, তৎকালীন পঞ্চায়ের চেয়ারম্যান মরহুম হাজী মোস্তাক আহমদ এবং সদস্য মাষ্টার ফারুক আহমদ। বর্তমানে  মাদ্রাসা ও জমি  দখলের জন্য বিভিন্নভাবে পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে বিএনপি ও জামায়াতের লোকজন। ওই মাদ্রাসাতে সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল ফলক দেয়ার উপর ঈর্ষান্বিত হয়ে সপ্তাহখানিক আগে বিএনপি ও জামায়াত সমর্থিত সন্ত্রাসী পূর্ব জুমছড়ি এলাকার আলী আহমদের ছেলে আবু তাহের, আবুল কাসেম প্রকাশ বার্মাইয়া কাসেম, আলী আহমদের ছেলে আব্দুল মান্নান ও আবুল কালাম প্রকাশ্যে ফলকটি ভেঙ্গে ফেলে। মাদ্রাসাটি দখলে নেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে তারা।

জানা যায়, ওই ফলকটি ২০১৬ সালে বর্তমান সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল ফোরকানিয়া মাদ্রাসাকে এবতেদায়ী মাদ্রাসা উন্নতি করার লক্ষ্যে নতুন ভবনের ফলক উন্মোচন করেন। একটি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ফলক ভেঙ্গে ফেলা উপর জনমনে নানা প্রশ্ন সৃষ্টি হয়েছে। মানুষ ঘৃণা করছে ওই দখলদারকে।

মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি কবির আহমদ বলেন, ওই ফোরকানিয়া মাদ্রাসাকে এবতেদায়ী মাদ্রাসা করার জন্য ফলক উন্মোচন করেছিল রামু -কক্সবাজার আসনের সাংসদ সাইমুম সওরয়ার কমল। এখন মাদ্রাসাটি দখলে নেয়ার জন্য বিভিন্নভাবে পায়তারা চালাচ্ছে উক্ত সন্ত্রাসীরা। এমনকি এমপি কমলের দেয়ার ফলকটি ভেঙ্গে ফেলছে তারা। মাদ্রাসার জায়গা আছে ১৫ শতক।