একজন সেবক হিসেবে ঢাকাবাসীর জন্য কাজ করে যাবো: তাপস

Tapos-AL.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ মেয়র নির্বাচিত হলে নগরবাসীর সেবার জন্য সার্বক্ষণিক হেল্পলাইন চালুর ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আজিমপুরে বীর উত্তম হাবিবুর রহমান গেটের সামনে নির্বাচনী প্রচার ও গণসংযোগ কার্যক্রম শুরুর আগে এ কথা বলেন তিনি। আজ ঐতিহ্যবাহী লালবাগ ইরাকি মাঠ ও ললিতমোহন দাস লেনে গণসংযোগ করেন তিনি।

তাপস বলেন, ‘আমি নির্বাচিত হলে ঢাকাবাসীর জন্য হেল্পলাইন চালু করবো। হেল্পলাইনে ঢাকাবাসী যেকোনো অভিযোগ দিতে পারবে। হেল্পলাইনের মাধ্যমে তাদের সমস্যার সমাধান না হলে তারা সরাসরি মেয়রকে সংযোগ করতে পারবেন। মেয়র সঙ্গে সঙ্গেই সেই সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ গ্রহণ করবে।’

আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী বলেন, ‘আমি আপনাদের এতটুকু নিশ্চিত করতে পারি, নির্বাচিত হলে মেয়র হিসেবে নয়; একজন সেবক হিসেবে ঢাকাবাসীর জন্য কাজ করে যাবো। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন একটি সেবা প্রদানকারী সংস্থা। সুতরাং এই সেবা সংস্থাকে ২৪ ঘণ্টাই ঢাকাবাসীর সেবায় নিয়োজিত রাখবো। একজন সেবক হিসেবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে ২৪ ঘণ্টা ঢাকাবাসীর সেবা করবো। একজন সেবক হিসেবে ঢাকাবাসী আমাকে ২৪ ঘণ্টাই পাশে পাবে।’

গণসংযোগে জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া পাচ্ছেন জানিয়ে তাপস বলেন,‘আমরা উন্নয়নের যে রূপরেখা দিয়েছি, সেই রূপরেখা ঢাকাবাসী সাদরে গ্রহণ করেছে। আপনারা জানেন ঐতিহ্যবাহী ঢাকাকে নিয়ে কোনও পরিকল্পনা করা হয়নি। আমাদের প্রথম পরিকল্পনা হলো আমাদের ঐহিত্যকে সংরক্ষণ করা এবং ঐতিহ্যের যে স্বকীয়তা অপরূপ রয়েছে সেটাকে প্রস্ফূটিত করা। ঐতিহ্যবাহী ঢাকাকে নিয়ে আমাদের অনেক পরিকল্পনা রয়েছে। আমরা সেভাবে কাজ করতে চাই। আমাদের হারিয়ে যাওয়া ঐহিত্য যাতে পুনরুদ্ধার করতে পারি, পুনরুজ্জীবিত করতে পারি এবং বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে পারি এটা আমাদের পরিকল্পনায় রয়েছে।’

তাপস আরও বলেন, ‘প্রাণের ঢাকাকে আমরা পরিষ্কারবান্ধব সুন্দর নগরীর হিসেবে গড়ে তুলবো। আবর্জনা পরিষ্কার এগুলো দৈনন্দিন কাজ, দৈনন্দিন করা হবে। বাসযোগ্য উন্নত ঢাকা গড়তে সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ২৪ ঘণ্টা কাজে নিয়োজিত থাকবে। আমি নির্বাচিত হলে প্রথমদিন থেকেই মশক নিধন, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা এবং রাস্তায় উন্মুক্ত স্থান থেকে আবর্জনা অপসারণের ব্যবস্থা করবো।’

তাপসের সঙ্গে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোস্তাফা জালাল মহিউদ্দিন, আনোয়ার হোসেন, শাহাবউদ্দিন ফরাজী, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীরসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।