জালিয়াপালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ছে রোহিঙ্গা শিশুরা!

IMG20191128123923-scaled.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

ভুয়া জন্মনিবন্ধন নকল পিতা বানিয়ে জালিয়া পালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভর্তি হয়েছে তিন রোহিঙ্গা শিশু। তারা হল জাফর আলম, হোমেদা, রমিদা,

ভুয়া জন্মনিবন্ধন বানিয়ে কক্সবাজারের উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের জালিয়াপালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রোহিঙ্গা শিশুরা বিভিন্ন শ্রেণীতে অধ্যায়নরত রয়েছে বলে জানা যায়। আর এতে সহযোগিতা করছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, ও এলাকার কিছু স্বার্থন্বেষী মহল।

সরেজমিনে দেখা যায় জালিয়াপালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় একই পিতা তিন সন্তান ভিন্ন ভিন্ন পিতৃপরিচয় দিয়ে ভুয়া জন্ম নিবন্ধন বানিয়ে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভর্তি করেছে তারা হল জাফর আলম চতুর্থ শেণীর ছাত্র হোমাইদা তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী,ও রমিদা চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী, এই তিনজন পিতা রোহিঙ্গা নুরুল ইসলাম হলেও স্কুলে ভর্তির ভুয়া জন্ম সনদে জাফর আলমের পিতা দেখানো হয়েছে মোহাম্মদ আলী নামের স্থানীয় এক কিন্ডার গার্ডেন স্কুলের ভ্যান চালক কে।

উখিয়ার মৌছনী ক্যাম্পের বসবাস রোহিঙ্গা নুরুল ইসলাম তার সন্তানদের বাংলাদেশী পরিচয়ে ভিন্ন পিতা বানিয়ে চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে ভুয়া জন্ম নিবন্ধন বানিয়ে জালিয়া পালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভর্তি করেন।
ভুয়া জন্মনিবন্ধনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোরশেদ আলম স্বাক্ষরিত জন্ম নিবন্ধন বিদ্যালয়ে উপস্থাপন করলেও স্থায়ী ঠিকানা দেখানো হয়েছে প্যানাসিয়া ওয়ার্ড নাম্বার ১ ইউনিয়ন জালিয়াপালং থানা উখিয়া জেলা কক্সবাজার।হোমেদা ও রমিদা র পিতা নুরুল ইসলাম থাকলেও একই পিতার সন্তান জাফর আলমের জন্ম নিবন্ধন বাংলাদেশী মোঃ আলীর পরিচয়ে।

জালিয়াপালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু তাহের জানান নুরুল ইসলাম একজন রোহিঙ্গা সে কিভাবে জন্ম নিবন্ধন নিয়েছে আমার বোধগম্য নয়, জন্ম নিবন্ধন সহ ছেলে ও মেয়েদের স্কুলে ভর্তি করানোর জন্য নিয়ে আসে আমি জন্ম নিবন্ধন মুলে তাদের বিভিন্ন শ্রেণীতে ভর্তি করায় প্রতিবেদক প্রধান শিক্ষক আবু তাহের কে নুরুল ইসলামের পুত্র জাফর আলম কিভাবে মোহাম্মদ আলীর পুত্র হিসেবে ভুয়া জন্ম নিবন্ধন বানিয়েছে তা জানতে চাইলে কোন উত্তর দিতে পারেনি।

স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্ডেন স্কুলের ভ্যানচালক জালিয়াপালং ইউনিয়নের মোহাম্মদ আলী নামে পিতৃপরিচয়ে জন্ম নিবন্ধন অস্বীকার করে জানান জাফর আলম আমার সন্তান নয় আমাকে না জানিয়ে আমার পরিচয় রোহিঙ্গা নুরুল ইসলাম তার ছেলে জাফর আলমের নামে ভুয়া জন্ম নিবন্ধন বানিয়েছে।

বার্মার আকিয়াব এলাকার আবদুল করিম ও গোল বাহারের পুত্র নুরুল ইসলাম সম্প্রতি মায়ানমার থেকে বাংলাদেশ প্রবেশ করে এবং নদীপথে মালয়েশিয়া চলে যায় সেখানে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে বাংলাদেশী পাসপোর্ট হাতিয়ে নেয় সেই সূত্র ধরে রোহিঙ্গা নুরুল ইসলাম গত দুই মাস আগে বাংলাদেশে এসে বিলাসবহুল বাড়ি তৈরি করে এবং রোহিঙ্গা এলাকা থেকে স্থানীয়দের সাথে বসবাস শুরু করে।

কিছুদিন আগে রোহিঙ্গা নুর ইসলামের পুত্র শামসুল আলম পিতা নুরুল আলম কে বানিয়ে কক্সবাজার পাসপোর্ট অফিস থেকে পাসপোর্ট হাতিয়ে নেয় বলে জানা যায়। এ ব্যাপারে নুরুল আলম এর সাথে কথা হলে সে জানায় শামসুল আলম নুরুল ইসলামের ছেলে হল সে আমার পালক পুত্র তাকে আমরা লালন পালন করেছি।