কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার-৮

Cox-Model-2.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন মামলায় অভিযুক্ত ০৮ জনকে আটক করেছে। গত ১৭/১১/২০১৯ ইং তারিখ সকাল হতে ১৮/১১/২০১৯ ইং তারিখ সকাল পর্যন্ত অফিসার ইনচার্জ জনাব সৈয়দ আবু মোঃ শাহজাহান কবির, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জনাব মোহাম্মদ খায়রুজ্জামান, পুলিশ পরিদর্শক (ইন্টিলিজেন্স) মোহাম্মদ আরিফ ইকবাল, পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন্স) জনাব মোহাম্মদ ইয়াছিন,এসআই মোঃ শরীফ উল্লাহ, এসআই মোঃ সাইফুল ইসলাম, এএসআই মোঃ দ্বীন মোহাম্মদ, এএসআই কামাল-২, লিটুনুর রহমান,সঙ্গীয় ফোর্স এবং ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান খান সহ কক্সবাজার সদর মডেল থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ০৮ জন আসামীকে গ্রেফতার করেন কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ।
নিয়মিত মামলা সংক্রান্তে গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন
কক্সবাজার সদর মডেল থানার মামলা নং-৬২(১১)১৯ ইং ধারাঃ- মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬(১) এর ১০(ক)
১। মোঃ লালু মিয়া,পিতা- মৃত নজির হোসেন, সাং-কুতুপালং, ক্যাম্প বø্যাক ৩/১১(এ) ইলিয়াছ মাঝি, থানা-উখিয়া, জেলা- কক্সবাজার।
২। মোঃ দেলেয়ার হোসেন, পিতা- মনু মিয়া, সাং-মাতার বাড়ী, মন্তুরের বাড়ী, থানা- মহেশখালী, জেলা- কক্সবাজার।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার মামলা নং-৬৩(১১)১৯ ইং ধারাঃ- মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ৩৬(১) এর ১০(ক)
৩। এস এম জাকির হোসেন প্রঃ জাকির, পিতা- হাজী গোলাম মাজেদ, সাং- ভাভলপুর, কমড়া, বাজার, থানা- উল্লাপাড়া, জেলা- সিরাজগঞ্জ।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার নন এফআই আর নং- ৪৫৩(১১)১৯, ধারা- পুলিশ আইনের ৩৪(৬) সংক্রান্তে গ্রেফতারকৃত আসামী
৪। আইয়ুব খান, পিতা- নুরুসালাম, সাং- লাইটহাউস পাড়া, ১২নং ওয়ার্ড থানা ও জেলা- কক্সবাজার।

পরোয়ানা সংক্রান্তে গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন
১। শাহাদাত হেসেন তোফাইল, পিতা- মোঃ হোছন, সাং- ভুতিয়াপাড়া, ঈদগাঁও, থানা ও জেলা- কক্সবাজার।
২। আব্দুর রহিম, পিতা- আব্দুল আজিজ মোল্লা, সাং- আজিজিয়া হোটেল, ঝাউতলা, প্রধান সড়ক, পৌরসভা, থানা ও জেলা- কক্সবাজার।
৩। মোঃ আঃ রহিম, পিতা- দেলোয়ার হোসেন, সাং- দক্ষিন কুতুবদিয়া, পাড়া, কক্সবাজার সদর, কক্সবাজার।
৪। কুলসুমা আক্তার, স্বামী- দেলোয়ার হোসেন, সাং- উত্তর বাহারছড়া, খুশি ভবনের সামনের বাড়ী, নিরিবিলি, থানা ও জেলা- কক্সবাজার।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব সৈয়দ আবু মোঃ শাহজাহান কবির তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বিভিন্ন মামলায় গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে তাহাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এলাকার আম জনতা ও পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তার নিশ্চিতের লক্ষ্যে মামলায় অভিযুক্ত ও চিহিৃত অপরাধীদের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।