আজ ভারতের বিপক্ষে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ

Tiger-V-Ind.jpg

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ এই সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশ নিশ্চিতভাবেই ‘দুর্বল’ বলে বিবেচিত হচ্ছিল। একদিকে ভারতের মতো শক্তিধর দল, অন্যদিকে বাংলাদেশ দলে নেই প্রধান ভরসা সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল। এর সঙ্গে যোগ হয়েছিল ভারতের বিপক্ষে কখনোই টি-টোয়েন্টি ম্যাচ না জেতার রেকর্ড। সেই ভারতের বিপক্ষে আজ সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ অনেকটাই তরুণ একটা দল নিয়ে গেছে এই সিরিজ খেলতে। সিরিজের আগেই বাংলাদেশের অধিনায়ক রিয়াদ তাই বলেছিলেন, তাদের এখানে হারানোর কিছু নেই। প্রথম ম্যাচ জয়ের পর মুশফিকুর রহিমও বলেছিলেন, তারা সিরিজ জয়ের চাপ নিচ্ছেন না। কিন্তু আজ সিরিজ জয়েরই দারুণ একটা সুযোগ এসেছে বাংলাদেশের সামনে।সিরিজের প্রথম ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে দিয়েছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। দ্বিতীয় ম্যাচে সিরিজে ফিরেছে ভারত। আজ নাগপুরের বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের স্টেডিয়ামে ট্রফি নির্ধারণের ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল। অলিখিত এই ফাইনাল শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে।

বাংলাদেশের কোচ রাসেল ডমিঙ্গো মনে করেন, তার দলের ব্যাটসম্যানরা সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে আজ সিরিজ জিতে ফেলা সম্ভব। তিনি মনে করেন, ভারতের অনভিজ্ঞ বোলারদের চাপে ফেলে এই ম্যাচ জেতা সম্ভব। ম্যাচের আগের দিনের সংবাদ সম্মেলনে ডমিঙ্গো বলছিলেন, ‘এটা কোনো গোপন বিষয় নয় যে তাদের বোলিং তুলনামূলক অনভিজ্ঞ। আমরা ভালো ব্যাটিং করতে পারলে, আমাদের কৌশল ঠিক রাখতে পারলে তাদের বোলিংকে চাপে ফেলতে পারি। তারা ভালো দল। কিন্তু আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী ব্যাট করতে পারলে তাদের বোলিংকে চাপে ফেলতে পারব।’

সংবাদ সম্মেলনে ভারতের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রোহিত শর্মা স্বীকার করেছেন যে তাদের বোলাররা অনভিজ্ঞ এবং তাদের চাপে ফেলা সম্ভব। তবে তিনি আশা করছেন, তার তরুণ বোলাররা এই চাপের পরিস্থিতি থেকে বের হয়ে আসতে পারবেন। তবে এটা মেনেছেন যে বাংলাদেশ দলের পক্ষে দারুণ চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেওয়া সম্ভব।

নাগপুরের এই স্টেডিয়ামের উইকেট চিরায়তভাবে ব্যাটসম্যানদের সহায়তা করে। ফলে বড়ো রানের ম্যাচ দেখা যেতে পারে আজ। কিন্তু ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা বলেছেন, তারা উইকেট থেকে বোলারদেরও কিছু সহায়তা আশা করছেন। বিশেষ করে, স্পিনাররা এখানে টার্ন পেতে পারেন বলে তিনি মনে করছেন।

বাংলাদেশ দলে একটি পরিবর্তন আসতে পারে। ব্যাট হাতে বলার মতো কিছু করতে পারেননি মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। তার বদলে দলে আসতে পারেন গত দুই ম্যাচ সাইড লাইনে বসে থাকা মোহাম্মদ মিঠুন। মোসাদ্দেকের সামান্য চোটজনিত সমস্যাও আছে। এছাড়া সামান্য চোটে আছেন মুস্তাফিজুর রহমানও। যদিও মুস্তাফিজের চোট না খেলার মতো নয়; বরং এই ম্যাচে ‘ম্যাচ উইনার’ মুস্তাফিজকে আশা করছেন বাংলাদেশ কোচ।

ভারতীয় দলেও একটি পরিবর্তনের সম্ভাবনা আছে। যদিও রোহিত শর্মা বলেছেন, তিনি একাদশে খুব একটা পরিবর্তনের পক্ষে নন। তারপরও টানা দ্বিতীয় ম্যাচেও খলিল আহমেদ ভালো বল করতে পারেননি। ফলে তার বদলে শার্দুল ঠাকুরকে দেখা যেতে পারে একাদশে।