লাখো মুসল্লীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশ গ্রহণে ইজতেমা ময়দানে জুমার আদায়

Istema-1.jpg

ওয়ান নিউজঃ কক্সবাজার শহরের ডায়াবেটিস পয়েন্ট সংলগ্ন তিনদিনের জেলা ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে জুমার নামাজে স্বতঃস্ফূর্তভাবে মুসল্লীরা অংশ গ্রহণ করেছে।

জুমার নামাজের ইমামতি করেন মুফতি মাওলানা মোর্শেদুল আলম।
নামাজ শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতা করেন সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল।
জুমার নামাজে অংশ নিতে সকাল থেকে কক্সবাজার শহর ও আশপাশের এলাকা থেকে মুসল্লিরা পায়ে হেটে ইজতেমা ময়দানে হাজির হন। অনেককে গাড়ি নিয়ে যেতেও দেখা গেছে। তবে, যাত্রীবাহী যানবাহনগুলো ডায়াবেটিকস পয়েন্টে আটকে দিতে দেখা গেছে দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

শুক্রবার বাদ ফজর আমবয়ানের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে ইজতেমার দ্বিতীয় দিনের কার্যক্রম শুরু হয়।
শনিবার ১১ টা থেকে দুপুরের আখেরি মুনাজাতের মধ্য দিয়ে ইজতেমার কার্যক্রম সমাপ্ত হবে।

ইজতেমা সুষ্টুভাবে সম্পন্ন জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এদিকে, সকাল থেকে বিপুল মানুষের স্রোতের কারণে কক্সবাজার শহরের আশেপাশের সড়কগুলোতে সকাল থেকে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশ সদস্যরা অবস্থান নিয়েছে।

ইজতেমা মাঠে স্থান মুসল্লিদের সংকুলন না হওয়ায় অনেককেই খোলা জায়গায় খবরের কাগজ, জায়নামাজ, পলিথিন ইত্যাদি বিছিয়ে নামাজ আদায় করেছে।

ইজতেমাস্থলে সাধারণ মুসল্লিদের নিরাপত্তায় পুলিশ, আনসার ও র‌্যাব সদস্যসহ বিভিন্ন গোয়েন্দাসংস্থার সদস্যদের তৎপরতা বেশ লক্ষণীয়। ইজতেমা মাঠে স্বাস্থ্য বিভাগ, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি পানি সরবরাহ ও আগত মুসল্লীদের স্বাস্থ্যসেবায় কাজ করছে।

ইজতেমার মাঠে দুই মুসল্লির জানাজাঃ

কক্সবাজার শহরের ডায়াবেটিস পয়েন্ট সংলগ্ন তিনদিনের জেলা ইজতেমায় মৃত্যুবরণকারী দুই মুসল্লির নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৮ নভেম্বর জুমার নামাজ শেষে জানাজার নামাজে ইমামতি করেন তাবলীগ জামাতের শীর্ষ মুরব্বি মুফতি মোরশেদুল আলম।

ইজতেমায় মৃত্যুবরণকারী দুই মুসল্লীর মধ্যে একজন চকরিয়া উপজেলার ঢেমুশিয়া ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের মোছারপাড়া গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে মোক্তার আহমদ (৫৭)।

অপরজন কক্সবাজার পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড সমিতি পাড়ার কামাল বহদ্দার এর স্ত্রী হান্না (৫০)। জানাজা শেষে তাদের লাশ স্বজনেরা নিয়ে গেছে।

গত বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) সকালে আম বয়ানের মাধ্যমে জেলা ইজতিমা শুরু হয়েছে। আগামীকাল শনিবার সকালে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে।