রবি’র ডিজিটাল সেবা না প্রতারণা?

Robi.png

আসলেই বাংলাদেশে মোবাইল কোম্পানীগুলো দেখার কেউ নেই? কারণ, তাদের পরিপাটি সেবা কেন্দ্রগুলোতে গেলে কোন সমাধান তো পাওয়া যায় না, বরং বিড়ম্বনা আরও বাড়ে।  তাদের স্মার্ট লোকগুলো স্যার বলে সম্ভোধন করে, স্যার আপনার কি সমস্যা বলুন? সমস্যাগুলো আমি আমাদের মূল সার্ভার ষ্টেশনে পাঠিয়ে দিয়েছি। সমস্যা নেই স্যার, সহসা সমাধান হয়ে যাবে এবং সার্ভার ষ্টেশন থেকে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে। শুরু হলো আরেক যন্ত্রণার পালা। নিজের কষ্ঠের টাকায় সিমও নিলাম, টাকাও অগ্রিম প্রদান করে ইন্টারভিউও দিলাম। কথায় আছে না, যে লাউ সে কদু।

ছয় মাস পরে আবার ফোন দিল সেই অম্বসার চাঁদ- কাষ্টমার কেয়ার। স্যার আপনার একটা অভিযোগ ছিল, দয়া করে বলবেন কি? যাক, যা হওয়ার তাই হল। কিন্তু আমরা যারা ভোক্তভোগী তাদের সমাধান তো হবে না! ব্যক্তিগত ভাবে আমি আমার কথা বলছি- আমি রবি সেবা কেন্দ্রে একাধিকবার গিয়ে কোন সেবা তো পায়নি, শান্তনাও দিতে পারেনি। তাতে তাদের কিছু আসে যায় না। যা গেছে, আমার গেছে। গতকাল ০৮/০৭/২০১৯ইং তারিখ রাত (আমার মোবইলের সময় অনুযায়ী) ৯.০৭মিনিটের সময় আমার মোবাইল ০১৮৮৫ ৯৭৮০০৮ একটা ম্যাসেজ আসে আপনার গুনগুন সার্ভিসটি সফলভাবে অ্যাক্টিভ হয়েছে এবং সার্ভিস চার্জ বাবদ ৩৩.১৫ টাকা আগামী ২৬দিনের জন্য। আমি কখনও গুনগুন সার্ভিস অ্যাক্টিভ করার জন্য ম্যাসেজ পাঠাইনি, কিন্তু কেন গুনগুন সার্ভিস সফলভাবে অ্যাক্টিভ হয়েছে বলে টাকা কেটে নিলেন। এভাবে আরও কত লোকের টাকা কেটে নিলো তার কোন হিসাব তথাকথিত সেবা কেন্দ্রগুলো বলতে পারবে না। টাকা তো ফেরত দিতে পারবে না বরং আরও গ্রাহকদের ফোন করে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে বিরক্ত করে রবি সেবা কেন্দ্রগুলো।

গ্রামে-গঞ্জে অশিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত এবং বয়স্ক লোকজনকে অপ্রয়োজনীয় ম্যাসেজ দিয়ে অহেতুক টাকা কেটে নিয়ে প্রতারণা করছেন? একটি সমীকরণে দেখা যায়- রবি মোবাইল কোম্পানী এভাবে নামে-বেনামে ইংরেজী ভাষায় ম্যাসেজ পাঠিয়ে প্রতি মিনিটে হাজার হাজার গ্রাহকের কাছ থেকে হাজার কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

যেখানে আমাদের মতো উচ্চ শিক্ষিত ও সচেতন জনগণের সাথে প্রতারণা করতে দ্বিধা করছে না সেখানে অশিক্ষিত জনগণের কি অবস্থা?

মহামান্য আদালত এবং বিটিআরসি কর্তৃক বাংলা ভাষায় সকল ধরনের ম্যাসেজ গ্রাহকদের পাঠানোর নির্দেশনা থাকলেও মোবাইল কোম্পানীগুলো তা তোয়াক্কা করছে না।

রবি আজিয়াটার কাছে আমার প্রশ্ন- আর কত বাংলার সহজ সরল মানুষের সাথে ডিজিটাল প্রতারণা করবেন? আপনাদের দেনা পরিশোধ করতে না পারলে সার্ভিস বন্ধ করে দিন কিন্তু বাংলার কেটে খাওয়া মানুষের সাথে প্রতারণা করবেন না। নামে-বেনামে, সময়ে-অসময়ে বাংলার নিরহ মানুষের হাতে সিম ধরিয়ে দেওয়া সিমগুলোতে ম্যাসেজ দিয়ে অ্যাক্টিভ না করিয়ে সার্ভিস চার্জ নিবেন তা কখনও মেনে নেওয়া যায় না।

সরকার যতো নিয়ম-নীতি করছে, মোবাইল কোম্পানীগুলো তার বিপরীত করছে? মোবাইল কোম্পানীগুলোকে আরও নজর দারী ও স¦চ্ছতা নিশ্চিতে কাজ করার জন্য গ্রাহকদের অভিযোগ।

রবি নিজেকে ৬৪ জেলায় ৪.৫জি নেটওয়ার্ক বিস্তৃত দাবী করলেও বাস্তবে পর্যটন নগরী কক্সবাজার শহরে অধিকাংশ জায়গাতে ২জি পাওয়া দুস্কও বলে দাবী গ্রাহকদের।

ঢাকা হতে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে হানিমূনে আসা আবদুল করিমের সাথে সুগন্ধা পয়েন্টে রবি নেটওয়ার্ক সম্পর্কে আজ দুপুরে জানতে চাওয়া হলে, তিনি বলেন- রবি নেটওয়ার্ক অফিসের কর্পোরেট সিম হওয়াতে ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছি। ঢাকাতে যা বাজে, কক্সবাজারে ৯০ শতাংশ লোকের কাছে রবি সিম হওয়ার পরেও নেটওয়ার্ক অবস্থা এত বাজে কল্পনা করা যায় না।

মুহাম্মদ ছলিম উল্লাহ সুজন

সম্পাদক, ওয়ান নিউজ