উখিয়ায় যৌতুক লোভী স্বামীর নির্যাতনে ঘরছাড়া রুবি আকতার

rubi.jpg
উখিয়া প্রতিবেদক
উখিয়া উপজেলার রাজাপালং তুতুরবিল যৌতুক লোভী স্বামীর নির্যাতনে রুবি আকতার (৩৮)নামে এক গৃহবধূকে অমানবিক নির্যাতন করে ঘর থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়।
গত ১৫/০৬/২০১৯ ইং তারিখ বিকাল ৩:০০ টার দিকে রাজাপালং তুতুরবিল স্বামী ফকির আহামদ (৪৫) এর বসতবাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
জানাযায়, ফকির আহামদ(৪৫) পিতা : মৃত কালা মিয়া গত ২৪/০৫/২০১৫ ইং তারিখে কক্সবাজার নোটারি পাবলিকের কার্যালয়ে,  রাজাপালং তুতুরবিলের মৃত আবুল হোছনের মেয়ে রুবি আকতারকে রেজিঃ হলফনামা নং ১২৫২ সম্পাদন পূর্বক দ্বিতীয় স্ত্রী হিসাবে বিবাহ করিয়াছিল, বর্তমানে তাদের সংসারে আড়াই বছরের একটি ছেলে সন্তানও রয়েছে।
উল্লেখ্য যে,  গত ৭-৮ মাস আগে স্ত্রী রুবি আকতারকে বাপের বাড়ি থেকে ২ লাখ টাকা যৌতুক আনতে বললে তাতে সে অসম্মতি উক্তি করে বলেন বাবা নেই টাকা আনবো কোত্থেকে। তার এমন জবাবে ক্ষিপ্ত হয়ে স্বামী ফকির আহামদ তার উপর অমানবিক নির্যাতন শুরু করতঃ রুবি আকতার এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নালিশ করে কয়েকবার সালিশ বৈঠকের ব্যবস্থা করেও পার পায়নি। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৫/০৬/২০১৯ ইং বিকাল ৩:০০ টার দিকে স্বামী ফকির আহামদ ও প্রথম স্ত্রীর ছেলে নুর আলম প্রঃমনিয়া রুবি আকতারকে অমানবিক নির্যাতন ও মারধর করে মারাত্নক জখম করে বাড়ি থেকে বের করে দিলে পাড়ালিয়া লোকজন আসিয়া তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে হাসপাতালে ভর্তি দেয়, সে এখনো পর্যন্ত চিকিৎসাধীন আছে বলে জানাযায়।
আইনের আশ্রয় নেওয়া হয়েছে কিনা জানতে চাইলে রুবি আকতার বলেন, উখিয়া থানায় ২জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে এবং ওসি সাহেব সংশ্লিষ্ট আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও আশ্বস্ত করেন।
উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব আবুল খায়ের থেকে এ বিষয়ে জানতে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উল্লিখিত ঘটনার বিষয়ে তিনি অবগত হয়েছেন। তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।