‘কোহলিই সেরা, শচীন নয়!’

Koholy.jpg

ওয়ান নিউজ ক্রীড়া ডেক্সঃ যে দুজনকে নিয়ে তুলনা তারা কেউ ক্রিকেটে তুলনা মোটেও পছন্দ করেন না। তবে ইংল্যান্ডের সাবেক অলরাউন্ডার অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ অতোদুরের চিন্তা করেননি। শচীন টেন্ডুলকার এবং বিরাট কোহলি দুজনের বিপক্ষে খেলেছেন তিনি। এই দুজন প্রসঙ্গে ফ্লিনটফ এক মন্তব্যে শচীনের তুলনায় বিরাট কোহলিকেই সেরা খেলোয়াড় হিসেবে বেছে নিলেন!

ইংল্যান্ডের একটি পত্রিকার সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে ফ্লিনটফ বলেন-‘সত্যিকার ভাবে বলতে গেলে সম্ভবত বিরাট কোহলি সবসময়ের সেরা খেলোয়াড়। হ্যাঁ, শচীনের চেয়েও সেরা। শচীনের সঙ্গে কারো তুলনা করতে হবে সেটা আমি কখনো ভাবিনি। বিরাট কোহলিকে দেখে সিদ্ধান্তটা বদলেছি। কোহলির খেলা দেখতে আমি ভালোবাসি। তার ব্যাটিং দেখা যে কারোর জন্যই চোখ জুড়ানোর মতো ব্যাপার। আশা করছি এই বিশ্বকাপে আমরা তার সেরাটা দেখতে পাবো।’

২০১৯ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলেরও প্রশংসা করেন ফ্লিনটফ। ভারতের ১৫ জনের দলে অলরাউন্ডার আছে তিনজন। হার্দিক পান্ডে, বিজয় শঙ্কর ও রবিন্দু জাদেজা। নিজের মতামতে ফ্লিনটফ জানান-‘ওয়ানডে ক্রিকেটে অলরাউন্ডাররা যে কোনো দলের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখতে পারে। ব্যাটে-বলে দলের জন্য অবদান রাখার সুযোগ থাকে তাদের। হার্দিক পান্ডে জেনুইন ম্যাচ উইনার। তাকে নিয়ে এখনো বিশ্ব ক্রিকেটে তেমন মাতামাতি নেই। তার মতো ঠান্ডা মাথার একজন ব্যাটসম্যান রান তাড়ায় দলের অনেক কাজে লাগতে পারে। রবিন্দু জাদেজা অনেকদিন ধরে ভারতীয় দলে খেলছে। খুবই লড়াকু ক্রিকেটার সে।’

তবে খেলোয়াড় হিসেবে বিরাট কোহলি ও ভারতীয় দলের ভুয়সী প্রশংসা করলে ফ্লিনটফ এবারের বিশ্বকাপ জয়ের তালিকায় তার দেশের নাম রেখেছেন সবার ওপরে-‘এবারের টুর্নামেন্টে ইংল্যান্ড তর্কহীনভাবে সেরা দল। বিশ্বকাপ ট্রফি জেতার দারুণ একটা সুযোগ থাকছে এবার ইংল্যান্ডের সামনে। সম্ভাবনার দ্বিতীয় তালিকায় আমি ভারতকে রাখবো। প্রতিভার কোনো অভাব সেই ভারতীয় দলে। তবে হ্যাঁ, অস্ট্রেলিয়াকে একেবারে বাতিলের খাতায় রাখা ঠিক হবে না। বিশ্বকাপের জন্য তাদের প্রস্তুতিটাও মন্দ নয়। স্মিথ এবং ওয়ার্নার ফিরে আসায় তাদের শক্তিমত্তা আরো বেড়েছে। তাছাড়া বিশ্বকাপের রেকর্ডও অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত।’

টি-টুয়েন্টির মারকুটো ব্যাটিংয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটেও প্রভাব ফেলবে বলে মনে করেন ইংলিশ এই অলরাউন্ডার-‘অবশ্যই এবারের বিশ্বকাপের ম্যাচ গুলোতে স্কোরবোর্ডে বড় রান উঠবে। প্রাণশক্তিতে ভরপুর ক্রিকেটের আমেজ নিয়ে অপেক্ষায় করছে বিশ্বকাপ।’