পুলিশের মালখানা থেকে মামলার নথি চুরির ঘটনায় মামলা

প্রিয় চট্রগ্রাম

চট্টগ্রাম আদালত ভবনে জেলা পুলিশের মালখানা থেকে চারটি মামলার নথি চুরির ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (০২ এপ্রিল) রাতে কোতোয়ালী থানায় চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের পরিদর্শক (প্রসিকিউশন) বিজন কুমার বড়ুয়া বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, মামলার এজাহারে মালখানা থেকে চারটি থানার চার মামলার আলামত চুরি হওয়ার অভিযোগ করা হয়েছে।

চারটি থানার আলামতের মধ্যে আছে- ফটিকছড়ি থানায় ২০০৪ সালের সেপ্টেম্বরে দায়ের হওয়া একটি মানিলন্ডারিং আইনের মামলার আলামত হিসেবে রাখা দুটি ‍হুন্ডি’র টোকেন। হাটহাজারী থানায় ২০০৫ সালের জুলাইয়ে দায়ের হওয়া আরেকটি মানিলন্ডারিং মামলার আলামত হিসেবে রাখা ১২টি হুন্ডির টোকেন।

পটিয়া থানায় ২০০৫ সালের অক্টোবরে দায়ের হওয়া বিশেষ ক্ষমতা আইনের একটি মামলার আলামত হিসেবে রাখা দেড় হাজার টাকা সমমানের আফগানিস্তানের মুদ্রা, ইরানি ২৫ দিনার, ইয়েমেনের ৫০ রিয়েল, ২০ রিয়েল ও ২টি ১০ রিয়েল মুদ্রা। ফটিকছড়ি থানায় ২০১৮ সালের এপ্রিলে দায়ের হওয়া মাদক আইনের একটি মামলার আলামত ইসলামী ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এবং ডাচ বাংলা ব্যাংকের কয়েকটি চেকবই চুরি হয়েছে।

কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য,গত ১৮ মার্চ সকালে মালখানায় চুরির বিষয়টি ধরা পড়ে। পরে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে তালা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে নথি চুরির বিষয়টি ধরা পড়ে । এ ঘটনায় মালখানার দায়িত্বে থাকা দুই পুলিশ কনস্টেবলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।