এই সরকার জনগণের সরকার নয়: ফখরুল

fakhrul.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র পরিচালনায় পুতুল সরকারের ভূমিকা পালন করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই সরকার জনগণের সরকার নয়। এরা কোনো নির্বাচিত সরকার নয়। এই সরকার শুধুমাত্র তাদের বিদেশি প্রভুদের হুকুম পালন করার জন্য। এই জন্য একের পর এক প্রহসনের নির্বাচন দিয়ে তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়।’

তিনি বলেন, বিশ্বের অনেক দেশে অনেক সরকার আছে যাদেরকে পাপেট গভর্নমেন্ট বা পুতুল সরকার বলা হয়, যারা বিদেশি শক্তি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। আজকে এই সরকারও পুতুল সরকারের ভূমিকা পালন করছে।

এই অবস্থা থেকে উত্তরণে নবীনদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, যুবক-তরুণদের মধ্যে দেশপ্রেম ছড়িয়ে দিতে হবে। এর জন্য যারা আজ বৃদ্ধ হয়েছেন, বয়স হয়েছে তাদেরকে দেশের পথে-প্রান্তরে যেতে হবে। জিয়াউর রহমান যেভাবে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের রাজনীতি, বাংলাদেশের স্বাধীনতা রক্ষার দর্শন ছড়িয়ে দিতে গ্রামের পর গ্রামে ছুটে বেড়িয়েছেন, যেভাবে খালেদা জিয়া বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য ও গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনার জন্য বাংলার পথে প্রান্তরে ঘুরে বেড়িয়েছেন, সেভাবে মুক্তিযোদ্ধাদেরকে দেশের যুবকদের জাগিয়ে তুলতে হবে। দেশকে রক্ষার জন্য তাদেরকে এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি বলেন, দেশে এখন আর কিছু অবশিষ্ট নেই। এই সরকার সম্পূর্ণভাবে মিথ্যা, প্রতারণা দিয়ে রাষ্ট্রের স্তম্ভগুলোকে ভেঙে দিয়ে রাজত্ব করছে। বিচার বিভাগ শেষ করে ফেলেছে, দেশে আইন বলতে কিছু নেই।

মির্জা ফখরুল বলেন, রাজনৈতিক দল হিসেবে আওয়ামী লীগের রাষ্ট্র পরিচালনার কথা, কিন্তু তারা প্রশাসনকে দিয়ে রাষ্ট্র পরিচালনা করছে। তারা আজকে সরকারি কর্মচারিদের বেতন বাড়াচ্ছে, সেনাবাহিনী, পুলিশ, র্যা বের বেতন বাড়ছে, সিভিল প্রশাসনে যারা আছেন তাদের বেতন বাড়ছে। কিন্তু জনগণের কোনো আয় বাড়ছে না। উপরন্তু তাদের কাছ থেকে বেশি করে ট্যাক্স নেওয়া হচ্ছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস, গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি, জ্বালানি তেল– সবকিছুর দাম প্রতিবছর বাড়ানো হচ্ছে। এরা ক্ষমতায় টিকে আছে শুধুমাত্র মানুষের ওপর নির্যাতন-নিপীড়ন করে, জনগণের পকেট খালি করে তাদের পকেট ভর্তি করার জন্যে।

কারাবন্দি অসুস্থ খালেদা জিয়াকে বেআইনিভাবে ও অন্যায়ভাবে আটক রাখা হয়েছে অভিযোগ করে তার মুক্তির জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব।

আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ বক্তব্য দেন।