এলাকার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে থাকুন

Coxs-3-Mp-Komol-Pic.jpg

নীতিশ বড়ুয়া, রামু

তথ্য মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য, কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, রামুতে স্বাধীনতার আগে উচ্চ বিদ্যালয় ছিলো ৫ টি, স্বাধীনতার পরে ৪৪ বছরে উচ্চ বিদ্যালয় হয়েছে ১৯ টি। আর আমরা গত ৫ বছরে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ১১ টি নতুন উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছি। সে সাথে উপজেলার দুর্গম জনপদের যে এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় ছিলো না, সে এলাকা সমুহে প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্ন বিদ্যালয় ও মাদ্রাসায় নতুন নতুন ভবন নির্মাণ করে রামুকে শিক্ষার নগরী গড়ার পথে এগিয়ে চলছি। তারই ধারাবাহিকতায় রামু উত্তর মিঠাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে অষ্টম শ্রেণীতে উন্নিত করা হয়েছে। আগামীতে এ বিদ্যালয়কে পুর্ণাঙ্গ উচ্চ বিদ্যালয়ে রূপান্তর করা হবে।

রামু উত্তর মিঠাছড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় (প্রাক প্রাথমিক থেকে অষ্টম শ্রেণী) এর বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নে বাংলাদেশ দ্রæত এগিয়ে যাচ্ছে। এ এগিয়ে যাওয়ার সাথে কক্সবাজার ও রামু উপজেলাকে আধুনিক ও মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে মাস্টার প্ল্যানের আওতায় আনা হয়েছে। তিনি উত্তর মিঠাছড়িকে ইউনিয়ন পরিষদ করে ওই এলাকায় বিসিক শিল্প নগরী গড়ে তুলার ঘোষনা দেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে উত্তর মিঠাছড়ি এলাকার মানুষ নৌকা প্রতীকে বিপুল ভোট দেয়ায় এমপি কমল এলাকাবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। আগামীতেও শেখ হাসিনার সাথে থেকে এলাকার উন্নয়নে অতীতের মতো সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান তিনি।

মঙ্গলবার (১২ মার্চ) রাতে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে সাবেক এমইউপি, বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল শামসুদ্দিন আহমদ প্রিন্স, রামু উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আবু নছর মো. হাছান, সাবেক ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান ফরিদ বক্ত বাবুল, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি শরিফুল আলম চৌধুরী, পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী, বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ নজরুল ইসলাম, রামু উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়–য়া, বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক ফজলুল করিম। সহকারী শিক্ষক কফিল উদ্দিন ও পরিচালনা কমিটির সদস্য সাইফুল ইসলাম চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফখরুদ্দিন টিটু। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, রামু উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান শিক্ষক কল্পনা রাণী শর্মা, সেলিম উদ্দিন, মিজবাহ উদ্দিন, মো. সোহেল, কক্সবাজার জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মিজানুর রহমান, রামু স্বেচ্ছাসেবক লীগ যুগ্ম সম্পাদক আবু বক্কর ছিদ্দিক, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য এস্তেফা বেগম, সাইফুল ইসলাম শাহীন, মুন্নি, আওয়ামী লীগ নেতা হারুনুল আলম চৌধুরী, রাখাল রুদ্র, দিদারুল আলম, মোজাম্মেল হক, সাবেক মেম্বার আমিন উদ্দিন মনু, মহিলা মেম্বার ফাতেমা বেগম, বাবুল বড়ুয়া, মনসুর আলী, আব্দুস চোবহান, মোঃ ফেরদাউস, বদি আলম, আনিসুজ্জামান চৌধুরী, আলী আক্কাস, সাংবাদিক আল মাহমুদ ভুট্টো, ডা. ছাবের আহমদ, নবী হোসেন, বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ নেতা রবিউল ইসলাম চৌধুরী, ইনজামাম আহমেদ রামীম প্রমুখ।

পুরষ্কার বিতরণ শেষে বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রী ও প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশতি হয়। এর আগে প্রধান অতিথি আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল অনুষ্ঠান স্থলে পৌঁছলে আনসার কমান্ডার ছৈয়দ হোছেন’র নেতৃত্বে বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা কুচকাওয়াজের মাধ্যমে সালাম প্রদর্শন করেন।