আনোয়ারাতে ওয়ালটন মিট দ্য ডিলার প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

Walton.jpg

জে.জাহেদ, চট্টগ্রাম ব্যুরো:

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার আনোয়ারাতে ওয়ালটন গ্রুপের ডিলার ও সাব ডিলারদের নিয়ে ‘মিট দ্য ডিলার-১৯’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার দুপুর ২টায় আনোয়ারা সেন্টার এলাকার স্বনামখ্যাত দেয়াং রেস্টুরেন্টে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

গ্রাহকদের চাহিদা, পণ্যের মান, ব্যবসায় আরো উন্নয়ন ও দ্রুত গ্রাহকের কাছে পণ্য পৌঁছে দেওয়ার জন্য ডিলার ও সাব ডিলারদের নিয়ে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ওয়ালটনের পণ্য বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান মেগা ডিস্ট্রিবিউটর
বিছমিল্লাহ্ ইলেকট্রনিক্স।

বিছমিল্লাহ্ ইলেকট্রনিক্সের স্বত্তাধিকারী আলহাজ্ব রেজাউল করিম রুবেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ওয়ালটনের এরিয়া ম্যানেজার শাখাওয়াত হোসেন।

ডিলারদের মধ্যে এসএ ইলেকট্রনিক্সের মালিক মো. আলী মুন্সি ও জেএম ইলেকট্রনিক্সের মালিক মো. জসিম উদ্দিন ও ম্যাক্স ইলেকট্রনিক্স এর কয়েকজন মালিকেরা বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওয়ালটনের এরিয়া ম্যানেজার শাখাওয়াত হোসেন বলেন, ‘ওয়ালটন দেশের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য সক্রিয়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। দেশের ইলেকট্রনিক্স বাজারে প্রায় ৭৫ ভাগ চাহিদা পূরণ করে এখন পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে পণ্য রপ্তানীর মাধ্যমে বাংলাদেশের পতাকাকে ঊর্ধ্বে তুলে ধরেছে। বাংলাদেশে কম্প্রেসার উৎপাদন করছে ওয়ালটন এবং ইউরোপের দেশ ও অন্যান্য দেশেও রপ্তানি শুরু করেছে। আমরা এসব অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ডিলার ও সাবডিলারের মতামত গ্রহণ করে থাকি।

কেননা, তাদের মাধ্যমে আমরা আমাদের ব্যবসাকে প্রসারিত করি। আমাদের শ্লোগান হলো বিদেশী পণ্য বর্জন করবো, দেশের পণ্য ব্যবহার করে, দেশের টাকা দেশে রাখবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওয়ালটন পণ্য আমাদের দেশীয় পণ্য, আমাদের পণ্য। ওয়ালটন বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স কোম্পানি। আজকের আধুনিক বাংলাদেশের পেছনে ওয়ালটনের ভূমিকা রয়েছে। ওয়ালটন বিশ্বে ১৭তম প্রযুক্তি খাতের কোম্পানি হিসেবে অবস্থান করছে।’

এসময় তিনি ডিলার ও সাব ডিলারদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘গ্রাহকের চাহিদা জানতে আমরা সব সময় আপনাদের মতামতকে প্রাধান্য দেই। ওয়ালটন আপনাদের মতামতের ভিত্তিতে পণ্য তৈরি করে। ডিলার ও সাব ডিলাররা তাদের শো-রুমে ওয়ালটনের সকল পণ্য রাখবেন। এতে মার্কেটিং সহজ হবে।

আমাদের ওয়ালটন এলইডি টিভি বিক্রিতে দেশে আমরা প্রথম সারিতে আছি। পণ্যের বাজার কখনো তৈরি থাকে না। বাজার তৈরি করে নিতে হয়। আমাদের বিশ্বাস আমরা দেশের প্রতিটি ঘরে ওয়ালটন পণ্য সহজে পৌঁছে দিতে পারবো।’

অনুষ্ঠানে বিছমিল্লাহ মেগা ডিস্ট্রিবিউটর ইলেকট্রনিক্স এর সত্বাধিকারী আলহাজ্ব রেজাউল করিম রুবেল বলেন, আমরা মিট দ্য ডিলার প্রোগ্রামের মাধ্যমে আপনাদের সকলের সহযোগিতায় এক সঙ্গে কাজ করে ওয়ালটনকে বাংলাদেশের প্রধান ব্র্যান্ড হিসেবে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে চাইবো।’

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার প্রায় ৮৮ জন ডিলার ও সাবডিলার অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে মেগা ডিস্ট্রিবিউটর বিছমিল্লাহ ইলেকট্রনিক্সের পক্ষ থেকে ৩ জন সেরা ওয়ালটন পণ্য বিক্রেতাকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এতে শ্রেষ্ঠ বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে কর্ণফুলী উপজেলার আল মদিনা ইলেকট্রনিক্স সেন্টারকে প্রথম পুরস্কার স্বরুপ ২৪ইঞ্চি একটি এলইডি টিভি প্রদান করেন। আল মদিনা ইলেকট্রনিক্স এর পক্ষে পুরস্কারটা গ্রহণ করেন সত্বাধিকারী আলহাজ্ব মোহাম্মদ শাহাজাহান ও দ্বিতীয় পুরস্কার গ্রহণ করেন আনোয়ারার জেএম ইলেকট্রনিক্স সেন্টারের সত্বাধিকারী মো. জসিম উদ্দিন এবং তৃতীয় পুরস্কার হিসেবে এয়ারকুলার প্রদান করা হয়।

এছাড়াও কুপন লটারীর মাধ্যমে ওয়াশিং মেশিন ও একাধিক পুরস্কার দেওয়া হয়।

পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মিট দ্যা ডিলার অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়।