ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি করে ৬টি স্বভাব

Health-1.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ ত্বক ভাল রাখতে কেবল যত্ন নিলেই চলে না, দরকার কিছু জরুরি বিষয়ে সতর্ক হওয়াও। কিন্তু দৈনিক জীবনযাপনে আপনিও কি এমন কিছু ভুল করে বসছেন, যার প্রভাবে আপনারও ত্বক সমস্যায় পড়ছে নিয়ত? তবে কয়েকটা সহজ নিয়ম মেনে চললেই মিটতে পারে সে সমস্যা। ত্বককে প্রাণবন্ত রাখতে কোন কোন স্বভাব আজই ছাড়তে হবে জানেন?

তেল-মশলা

খাবারের সঙ্গে শরীরে প্রবেশ করা তেল-মশলার পরিমাণ কমাতে না পারলে ত্বকের ক্ষতি প্রতিরোধ প্রায় অসম্ভব। শরীরের অরিকিক্ত তেল ত্বকের কোষের মুখগুলোকে আটকে দেয়। এর প্রভাবে ব্রণের শিকার হতে হয় অনেককেই।

গরম পানি

সারা শীতকাল জুড়ে গরম পানিতে মুখ ধোন? পারলে আজই ছাড়ুন এই অভ্যাস। গরম পানি ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতাকে নষ্ট করে ও ত্বকের প্রয়োজনীয় তেলকে সরিয়ে দেয়। ফলে চামড়া কুঁচকে যাওয়া থেকে রুক্ষ হওয়া- সবটাই ঘটে গরম পানির কারণে।

ব্লিচ ও স্ক্রাব

ফর্সা হওয়ার ইচ্ছায় ব্লিচ ও স্ক্রাব করান অনেকেই। প্রথমেই মনে রাখতে হবে, গায়ের রং বদলানো অসম্ভব। ঘষেমেজে তাকে চটকদার বা জেল্লাদার করা যায় মাত্র। তাই ব্লিচ বা স্ক্রাবিংয়ে ফর্সা হওয়া যায়- এই মিথ ঝেড়ে ফেলুন। বরং বয়স ৪০ ছোঁওয়ার আগে ব্লিচ করার কোনও প্রয়োজন নেই। তাও খুব বুঝে এবং ত্বকের অবস্থার উপর নির্ভর করে করানোই বুদ্ধিমানের কাজ। ঘন ঘন ব্লিচ বা স্ক্রাবিং ত্বককে ফর্সা তো করেই না, উল্টো ত্বককে কালচে করে দেয়।

ধূমপান

ত্বকের যত্নের পথে সবচেয়ে বড় বাধা ধূমপান। শুধু হৃদরোগ বা ফুসফুসের ক্যানসার ডেকে আনাই নয়, ত্বকেরও প্রভূত ক্ষতি করে সিগারেটের নিকোটিন। এ ছাড়া সিগারেটের কার্বন মনো অক্সাইড ত্বকে অক্সিজেন পৌঁছানোর পথেও বাধা হয়ে দাঁড়ায়। ফলে ত্বক শুকনো হয় দ্রুত।

ইচ্ছামতো ওষুধ

চিকিৎসকের পরামর্শ না মেনে ইচ্ছামতো ওষুধ কেনেন নিজেই? শরীরের জন্য তো বটেই, ত্বকের জন্যও খুব ক্ষতিকর এই স্বভাব। বেশ কিছু বাজারচলতি প্রচলিত ওষুধ অনেক সময় ত্বকের নানা ক্ষতি করে। সবার ত্বকের প্রকৃতিও সমান হয় না। সব ত্বকের সঙ্গে খাপ খায় না সব ধরনের ওষুধ। অথচ সে সব না জেনেই যথেচ্ছ ওষুধ কেনার এই ‘অসুখ’ ক্ষতি করে ত্বকেরও।

প্রসাধনী

বিজ্ঞাপনী চমক বা লোকমুখে শুনেই প্রসাধন কেনার স্বভাব আছে? তাহলে সতর্ক হোন। প্রত্যেকের ত্বকের প্রকৃতি আলাদা হওয়ায় সব প্রসাধন সামগ্রী সবার ত্বকের সঙ্গে খাপ খায় না। তাই এ সব খুঁটিনাটি না জেনে, প্রসাধনীতে ব্যবহৃত উপাদান না জেনে তা কিনে ফেলা মোটেও উচিত কাজ নয়। তাই প্রসাধনী কেনার আগে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। আপনার ত্বকে কোন কোন উপাদান নিরাপদ- তা জেনে তবেই কিনুন নতুন কোনও প্রসাধনী।

সূত্র: আনন্দবাজার