কথক শিখছেন সুস্মিতা সেন

Sushmita.jpg

ওয়ান নিউজ  বিনোদন ডেক্সঃ বেশ কিছুদিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক ভিডিও প্রকাশ করে বলিউড পাড়ায় হইচই ফেলে দিয়েছেন প্রাক্তনমিস ইউনিভার্স সুস্মিতা সেন। গত বছরেই সুস্মিতা সেনের প্রকাশ করা ‘দিলবার‘ গার্ল বেলি ডান্স ঝড় তোলে ইন্টারনেটে। সেই উন্মাদনাকেটিকিয়ে রাখতে এবার নিজের কথক নাচ প্রশিক্ষণের ভিডিও ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করলেন সুস্মিতা সেন।

ভিডিও পোস্টে সুস্মিতা বলেছেন, কথকের মধ্যে দিয়ে তিনি জীবনের নতুন ছন্দ খুঁজে পেয়েছেন। আর এতে তাকে সাহায্য করেছেন তার মা এবং গুরু প্রীতম শিখারে। ইতমধ্যেই সুস্মিতার প্রকাশ করা এই ভিডিও দেশের লক্ষ্যাধিক মানুষের মন জয় করেছে। পড়েছে অসংখ্য কমেন্ট। পোস্টে কমেন্ট করেছেন অপর বলিউড ডিভা প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও।

বেশ কিছুদিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক ভিডিও প্রকাশ করে বলিউড পাড়ায় হইচই ফেলে দিয়েছেন প্রাক্তন মিস ইউনিভার্সসুস্মিতা সেন। গত বছরেই সুস্মিতা সেনের প্রকাশ করা ‘দিলবার‘ গার্ল বেলি ডান্স ঝড় তোলে ইন্টারনেটে। সেই উন্মাদনাকে টিকিয়ে রাখতেএবার নিজের কথক নাচ প্রশিক্ষণের ভিডিও ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ করলেন সুস্মিতা সেন।

ভিডিও পোস্টে সুস্মিতা বলেছেন, কথকের মধ্যে দিয়ে তিনি জীবনের নতুন ছন্দ খুঁজে পেয়েছেন। আর এতে তাকে সাহায্য করেছেন তার মা এবং গুরু প্রীতম শিখারে। ইতমধ্যেই সুস্মিতার প্রকাশ করা এই ভিডিও দেশের লক্ষাধিক মানুষের মন জয় করেছে। পড়েছে অসংখ্য কমেন্ট। পোস্টে কমেন্ট করেছেন অপর বলিউড ডিভা প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও।

বেশ কয়েকদিন ধরেই সুস্মিতা সেন ব্যক্তিগত সময় কাটাচ্ছেন তার কন্যা এবং ১৫ বছরের ছোট বয়ফ্রেন্ড রোহমান শালের সঙ্গে। সুস্মিতাসেন প্রায়ই তার মেয়েদের সঙ্গে মজা করে বিভিন্ন ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে আপলোড করেন। আবার কখনও বয়ফ্রেন্ড রোহমান শালেরসঙ্গেও জিমে এক্সারসাইজ করতে দেখা যাচ্ছিল তাকে। দীপাবলি উপলক্ষ্যে সুস্মিতা সেনের পোস্ট করা ভিডিওটি বেশ সারা ফেলেছিল তারফ্যানেদের মধ্যে।

সুস্মিতা সেন ১৯৯৪ সালে প্রথম ভারতীয় হিসেবে মিস ইউনিভার্সের খেতাব জেতেন। সুস্মিতা ১৯৯৬ সালের চলচ্চিত্র ‘দস্তক‘ দিয়েই বলিউডে পা রাখেন। ‘বিবি নাম্বার ওয়ান‘, ‘ম্যায়নে প্যায়ায় কিউ কিয়া‘, ‘ম্যায় হু না,’ ফিলহাল ‘, বাংলা চলচ্চিত্র ‘নির্বাক‘ তার আলোচিত চলচ্চিত্রগুলির অন্যতম। ২০১০ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সুস্মিতা সেন ‘আই এম শী‘ অনুষ্ঠান সংগঠিত করতেন, যার মাধ্যমে মিস ইউনিভার্সের জন্য ভারতের প্রতিনিধিদের নির্বাচন করা হত।