আপডেটঃ
ফরহাদ রেজার ঝড়ে হেরে গেলেন স্বাগতিক সিলেট সিক্সার্সযে আস্থা এবং বিশ্বাস নিয়ে জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছে, সে মর্যাদা আমি রক্ষা করবঃ প্রধানমন্ত্রীঅবশেষে জ্বলে উঠল সাব্বিরবাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোকে ফের সংলাপে বসার আহ্বান জাতিসংঘআগামী সোমবার ঘটবে পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণসভামঞ্চে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ আজ‘জঙ্গিবাদ ও মাদকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে তরুনরাই হবে আগামী দিনের সৈনিক’চট্টগ্রামে ৩টি হাইটেক পার্ক হচ্ছেপ্রতারণামূলক বাণিজ্য ‘১টি কিনলে ১০টি ফ্রি!’প্রথম আলো গণিত উৎসব-২০১৯ সম্পন্নলাইনে দাঁড়িয়ে বার্গার কিনলেন বিল গেটস!দল পুনর্গঠন করতে তরুণ ও ত্যাগীদের সুযোগ দিতে চায় বিএনপিবিপিএলে ফিফটি করেই মাঠে সেজদা সাকিবের‘একমাত্র শেখ হাসিনাই বাংলাদেশকে কিছু দিতে পারে আগামীতে ও পারবেন’

শাপলা চত্বরের ইতিহাস মানুষ চিরকাল স্মরণ রাখবে: বাবুনগরী

Babunagari.jpg

চট্রগ্রাম প্রতিনিধিঃ হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, তাওহীদের দাওয়াত দিতে গিয়ে নবী রাসুলগণ অনেক জুলুম-নির্যাতন সহ্য করেছেন৷

হযরত ইব্রাহীম আলাইহি ওয়াসাল্লাম আগুনের রিমান্ডে গিয়েছেন, এরপরও তাওহীদের ব্যপারে কোন আপোষ করেননি৷ নবী রাসুলগণের উত্তরসূরী উলামায়ে কেরামও তাওহীদের ব্যাপারে কোন আপোষ করতে পারে না৷

বৃহস্পতিবার রাতে হেফাজতের সাবেক নায়েবে আমির আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরীর সভাপতিত্বে হাটহাজারী পার্বতী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ময়দানে আল-আমিন ফাউন্ডেশন আয়োজিত দুই দিনব্যপী ঐতিহাসিক তাফসীরুল কুরআনে মাহফিলের প্রথম দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন তিনি।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, শাপলার ইতিহাস রক্তঝরা এক ইতিহাস। ওই দিনের ট্রাজেডি অত্যন্ত মর্মান্তিক, ও বেদনাদায়ক৷ শাপলা চত্বরের ইতিহাস এদেশের মানুষ চিরকাল শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ রাখবে। সেদিন আমি স্বচক্ষে শহীদের রক্তমাখা লাশ দেখেছি৷ এই শান্তিপ্রিয় হাটহাজারীতেও ছয়জন নবীপ্রেমিক শহীদ হয়েছিল৷

তিনি আরো বলেন, শাহবাগে নাস্তিক মুরতাদরা যখন বিশ্বনবীর শানে কটুক্তি করেছিল তখন কেবলমাত্র নবীর (সা.) সম্মান রক্ষার জন্য আমরা লাখো মুমিন শাপলা চত্বরে উপস্থিত হয়েছিলাম৷ ক্ষমতা দখল কিংবা দুনিয়ার কোন স্বার্থ হাসিলের জন্য আমরা সেদিন শাপলা চত্বরে যাইনি৷

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন মুফতী ওলী উল্লাহ, মুফতী সাখাওয়াত হুসাইন, মাওলানা গাজী ইয়াকুব ওসমানী, মুফতী সিরাজুল্লাহ, মাওলানা আব্দুল করীম, মুফতী আবু সাঈদ প্রমুখ৷

Top