আপডেটঃ
শহরে দুর্বৃত্তের হাতে অন্তঃসত্ত্বাসহ ৯ নারী আহতইছানগরের আলোচিত সেই ভবন মালিকের আত্মসমর্পণস্থানীয়দের মাঝে বহাল তবিয়তে অর্ধলক্ষাধিক রোহিঙ্গার বসবাস!আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে আত্মসমর্পণ করুন -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালরোহিঙ্গ্যা মানবিক সংকটে জাতিসংঘের ৯২০মিলিয়ন ডলার আহ্বানতিনদিনের সফরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন এখন কক্সবাজারেচট্টগ্রামে মানবিক মেলা উদ্বোধন করেন ভূমিমন্ত্রী‘এ যেন ভানুমতির খেল’৯ শিশু শিক্ষার্থীর স্মরণে শোক র‌্যালিমানবাধিকার কর্মী ও ভুয়া সাংবাদিকদের প্রতারণার দৌরাত্ব্য বেড়েই চলেছেনির্বাচন কমিশনে চাকরিশিল্প মন্ত্রণালয়ে নিয়োগযৌন প্রস্তাবের যে গোপন কোড ফাঁস করলেন শার্লিনকিং সৌদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন অ্যাওয়ার্ড পেলেন ২ বাংলাদেশি শিক্ষার্থী‘নতুন রোনাল্ডোর’ জন্য ম্যানইউর ১০০ মিলিয়ন ইউরো

ইসির তফসিলে সমর্থন আ’লীগের

Imam-AL.jpg

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আপত্তি জানালেও আগামীকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করছে নির্বাচন কমিশন। আর এতে পূর্ণ সমর্থন দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

বুধবার আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে গিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদাসহ নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে দেখা করে এ সমর্থনের কথা জানান আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এইচটি ইমাম।

তার নেতৃত্বে এদিন আওয়ামী লীগের ১৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করে।

বৈঠক শেষে এইচটি ইমাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্বাচন কবে হবে, তফসিল ঘোষণার সেই এখতিয়ার কেবল নির্বাচন কমিশনের। আমরা তাদের বলেছি, এ ব্যাপারে ইসি যে সিদ্ধান্ত নেবে, সরকারের পক্ষ থেকে আমাদের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সংলাপ শেষে গণভবন থেকে বের হয়ে বলেছেন আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে, ভালো হয়েছে। এটি হচ্ছে তার মূল বক্তব্য। আর ওই যে ছিঁচকে ছিঁচকে দল যারা নিবন্ধিত নয়, তাদের নেতারা অনেক বড় বড় কথা বলছেন।’

এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘সংলাপ যেখানে ফলপ্রসূ, সেখানে সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি কোথায় হলো? আমরাতো সাংঘর্ষিক কোনো পরিস্থিতি দেখছে না।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে, সবাই অংশগ্রহণ করবে। আমাদের আশা, বিএনপিসহ সকল দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে।’

প্রবীণ এই রাজনীতিক বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনকে সরকার কখনোই নিয়ন্ত্রণ করেনি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কমিশনকে আরও শক্তিশালী করার জন্য কাজ করে।’

সেনা মোতায়েনের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কখনোই সেনা মোতায়েনের বিরুদ্ধে বলেনি। আইন অনুযায়ী স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে সেনা মোতায়েন হতে পারে।’

এইচটি ইমাম বলেন, ‘সরকারি দল হিসেবে আমাদের দায়িত্ব বেশি। আলোচনায় অনেক কিছু পরিষ্কার হয়েছে। নির্বাচন কমিশন স্বাধীন প্রতিষ্ঠান। এটি প্রতিষ্ঠা করার জন্য আওয়ামী লীগ যতটা ত্যাগ করেছে, অন্য কেউ করেনি।’

নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে বৈঠকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের আচরণের নিন্দা করে তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল কমিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছে। কিন্তু, ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বৈঠকে এসে অমার্জিত ভাষায় কথা বলেছেন। ভয় দেখিয়েছেন। দেশের জনগণ নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে এমন আচরণ সহ্য করবে না। সমুচিত জবাব দেবে ভোটের মাধ্যমে।’

এইচটি ইমাম জানান, নারী ভোটারদের জন্য পর্যাপ্ত বুথ রাখতে অনুরোধ করেছি। ভোটগ্রহণে বিপুল জনশক্তি লাগবে। কিন্তু, আমরা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও এনজিও থেকে লোকবল না নেয়ার প্রস্তাব দিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, ‘ইভিএম অত্যন্ত সীমিতহারে ব্যবহৃত হবে। আমরাও এটি সমর্থন করছি। আমরা পোলিং এজেন্টদেরও ইভিএম পরিচালনার প্রশিক্ষণ দিতে অনুরোধ করেছি।’

এ সময় অন্যদের মধ্যে লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খান, ড. মশিউর রহমান, রাশেদুল আলম, মাহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দেলোয়ার হোসেন, বিপ্লব বড়ুয়া, এসএম কামাল হোসেন, রিয়াজুল কবির কাওসার, গোলাম রাব্বানী চিনু, তানভীর ইমাম, ফজিলাতুন্নেসা বাপ্পি, ড. সেলিম মাহমুদ ও মুস্তাফিজুর রহমান বাবলা উপস্থিত ছিলেন।

Top