আপডেটঃ
সর্বক্ষেত্রে আল্লাহ তা’আলার নির্দেশ মেনে চলার নাম ইবাদতকক্সবাজার জেলায় ওয়াইফাই জোন স্থাপনের নিমিত্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতবেনাপোল পুটখালী ফেনসিডিল সহ আটক ৩ফরহাদ রেজার ঝড়ে হেরে গেলেন স্বাগতিক সিলেট সিক্সার্সযে আস্থা এবং বিশ্বাস নিয়ে জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছে, সে মর্যাদা আমি রক্ষা করবঃ প্রধানমন্ত্রীঅবশেষে জ্বলে উঠল সাব্বিরবাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোকে ফের সংলাপে বসার আহ্বান জাতিসংঘআগামী সোমবার ঘটবে পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণসভামঞ্চে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশ আজ‘জঙ্গিবাদ ও মাদকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে তরুনরাই হবে আগামী দিনের সৈনিক’চট্টগ্রামে ৩টি হাইটেক পার্ক হচ্ছেপ্রতারণামূলক বাণিজ্য ‘১টি কিনলে ১০টি ফ্রি!’প্রথম আলো গণিত উৎসব-২০১৯ সম্পন্নলাইনে দাঁড়িয়ে বার্গার কিনলেন বিল গেটস!

কক্সবাজার সিটি কলেজের ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় অপসারণ করতে হবে- মেয়র মুজিব

43315792_1195528300585669_5051992549351227392_n.jpg

কক্সবাজার পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মুজিবুর রহমান বলেছেন- কক্সাজার সিটি কলেজ সংলগ্ন পাহাড় ভঙ্গুরের সমস্যা দেখা দিয়েছে। পাহাড়টি বৃষ্টির কারণে ভঙ্গুর হয়ে ঝরে পড়ছে। এতে বড় ধস হয়ে প্রাণহানির আশঙ্কা রয়েছে। তাই এর ঝুঁকিপূর্ণ অংশ আস্তে আস্তে পরিকল্পিতভাবে অপসারণ করতে হবে।

রোববার (৭ অক্টোবর) কক্সবাজার সিটি কলেজ কর্তৃক দেয়া সংবর্ধনার জবাবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি একথা বলেন। কলেজের অধ্যক্ষ ক্যথিং অংয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সংবর্ধণা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন।

তিনি বলেন, পাহাড় ঝরে পড়াটা এটা অত্যন্ত চিন্তার বিষয়। তাই এখন উচিত হয়ে দাঁড়িয়েছে- কলেজের ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়টি অপসারণ করে নেয়া। না হয় যে কোনো পাহাড়ের অংশ ভেঙে পড়ে প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে। এই বিষয়ে আমি জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলে পরিবেশ অধিদপ্তরকে বলে দেবো, সিটি কলেজের পাহাড় অপসারণ করকেত যেন কোনো বাধা দেয়া না হয়। শহরের বিভিন্ন এলাকায় প্রতিদিন পাহাড় কাটছে ভূমিদস্যুরা। কিন্তু সিটি কলেজের পাহাড় কাটা হবে জাতি গঠনের পথকে আরো অগ্রসরমান করার জন্য।

তিনি আরো বলেন, মনে রাখতে হবে ভালো কিছু করার জন্য কিছু ক্ষতি করতে হবে। তবে এমন না যে, সিটি কলেজের পাহাড়টা বিশাল পাহাড়। এই পাহাড়টা কাটলে এই এলাকার পরিবেশের কোনো ক্ষতি হবে না। বরং অনাকাঙ্খিত প্রাণহানি আশঙ্কাটা কমে যাবে। ফলে কলেজের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকেরা নিবির্ঘেœ তাদের পাঠ কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারবে। এই কাজটার জন্য আমি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সহযোগিতা করবো।

এসময় তিনি পরিচালনা কমিটি ও শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা এই কলেজটিকে অত্যন্ত সুন্দর ভাবে সাজিয়েছেন। এই কলেজের পরিবেশ দেখে আমার মন ভরে গেছে। আরো বাকি কাজগুলো করে এই কলেজকে সূর্য্যের আলোর মতো চকচকে করে তুলবেন। এতে পৌরসভা সহযোগিতা করবে।

মেয়র বলেন, এই কলেজ অনেক বড় পরিসরে রূপান্তর হওয়ায় তার সাথে মিলিয়ে আরো কিছু অবকাঠামো দরকার। তার মধ্যে হোস্টেল, অডিটরিয়াম, সড়ক প্রসস্তকরণসহ আরো কিছু উন্নয়ন করতে হবে। আমি পৌরসভার পক্ষ থেকে খুব শিগগিরই একটি অডিটরিয়াম নির্মাণ করে দেবো। সেই সাথে হোস্টেল নির্মাণের জন্যও আমি সহযোগিতার চেষ্টা করবো।

তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, মন দিয়ে পড়ালেখা করতে হবে। ভালো ফলাফল করতে হবে। মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা একটু পড়ালেখা কম করে। ছেলে-মেয়ে সবাই মন দিয়ে পড়ালেখা করো। যারা ভালো রেজাল্ট করবা তাদের জন্য পৌরসবার পক্ষ থেকে পুরস্কার ঘোষণা করছি। একই সাথে গরিব ছাত্রছাত্রীদের জন্য পৌরসভা অনুদান দেবে।

উক্ত সংবর্ধনা সংবর্ধনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন- সংবর্ধনা আয়োজন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক নূরুল আবছার চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- কলেজ পরিচালনা কমিটির দাতা সদস্য এড. ফরিদুল আলম, সদস্য ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম, কলেজের উপাধ্যক্ষ আবু জাফর মোঃ ছাদেক। মানপত্র পাঠ করেন প্রভাষক সৈয়দা রিপা জাহান।

কলেজ কর্তৃপক্ষ জানান, পাহাড় খাড়া হয়ে থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এতে  ছাত্রছাত্রীরা ঝুঁকি নিয়ে পাঠ নিচ্ছে। কয়েক দিন আগে নালা কাজ করতে গিয়ে পাহাড়ে কাছ থেকে এক শ্রমিকের উপর পাহাড়ের বালি মাটি ঝরে পড়ে। এতে তিনি চাপা পড়ে। তবে ছাত্ররা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

Top