আপডেটঃ
১৩৯ ইয়াবা কারবারির অবৈধ সম্পদের খোঁজে সিআইডি২০২১ সালের বিজয় দিবসে ফাইভজি: জব্বার২৩-২৫ মার্চ রোহিঙ্গাদের ক্যাম্পের বাইরে যাওয়া নিষিদ্ধজীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করলেন মিরাজ“মা” আমি আর স্কুলে যেতে পারবো নাশার্শার নাভারন বাজারে আগুন, ২ঘন্টা চেষ্টার পর নিয়ন্ত্রণেউপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়ায় বিএনপির ১৭ নেতা বহিষ্কারন্যূনতম লজ্জা থাকলে মির্জা ফখরুল বহু আগেই পদত্যাগ করতেন: হানিফচাকসু নির্বাচন সম্পন্ন করার প্রাথমিক ধাপ হিসেবেই এ কমিটি গঠনঃ উপাচার্যভারতের বিষয়ে পাকিস্তানকে হুশিয়ারি দিল যুক্তরাষ্ট্রখরুলিয়ায় একরাতে দুই বাড়ি ও দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি, জনমনে আতঙ্কশৈলকুপায় সজনের ভারে ন্যুয়ে পড়েছে গাছগুলোবাঁশখালীতে নৌকার পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগগর্জনিয়া ইপসার আস্থা প্রজেক্ট আয়োজনে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিতদৈনিক ইত্তেফাক’র কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি হলেন সায়ীদ আলমগীর

নোয়াখালীর ৩ রাজাকারের ফাঁসি, একজনের কারাদণ্ড

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় নোয়াখালীর জামায়াত নেতাসহ তিন আসামির মৃত্যুদণ্ড এবং একজনের ২০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

মঙ্গলবার বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- জামায়াত নেতা আমির আলী, মো. জয়নাল আবদিন ও আবুল কালাম ওরফে একেএম মনসুর। তাদের মধ্যে মনসুর পলাতক।

অন্য আসামি মো. আব্দুল কুদ্দুসকে ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

এ মামলায় আসামি ছিল পাঁচজন। এর মধ্যে আসামি মো. ইউসুফ আলী গ্রেফতারের পর অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়ায় তাকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

২০১০ সালে ট্রাইব্যুনাল গঠনের মধ্য দিয়ে একাত্তরের যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরুর পর এটি হল ৩১তম রায়।

২০১৬ সালের ২০ জুন চার আসামিকে হত্যা, লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় অভিযুক্ত করে বিচারকাজ শুরু করেন আদালত।

প্রসিকিউশনের আনা অভিযোগে বলা হয়, মুক্তিযুদ্ধের সময় আসামিরা নোয়াখালীর সুধারামে ১১১ জনকে হত্যা করে।

যুগান্তর রিপোর্ট

Top