৬০০০ বছরের পুরনো গুহা, যেখানে ধ্বংস হয়েছিলো আসহাবুল আঈক্যা জাতি

ডেস্ক নিউজ:
হযরত শোয়াইব (আ.)-এর কওম বসবাস করত তুরস্কে। ইতিহাসবিদরা বলছেন এই স্থানেই কওমে শোয়াইবকে ধ্বংস করেছিলেন আল্লাহ তা’আলা।

তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহর থেকে প্রায় ১১শ’ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মদিনাতুল আম্বিয়া এলাকায় হযরত শোয়াইব (আ.)-এর স্মৃতি বিজড়িত স্থান। সেই সময় পাথরের নিচে কেটে কেটে ঘর বানানো হতো। এগুলো অনেক বছর পরে খুঁজে পাওয়া গেছে।

হযরত শোয়াইব (আ.) পথভুলা মানুষকে সঠিক পথ দেখানোর জন্য, দিনের পর দিন রাতের পর রাত আল্লাহ’র দ্বীনের পথে মানুষকে আহ্বান করেছিলেন। কিন্তু লোকেরা শোয়াইব (আ.)-এর দাওয়াতে কর্ণপাত না করায় আল্লাহ তা’আলা তাদের আজাব দিয়েছিলেন। আল্লাহ’র গজবে ধ্বংসপ্রাপ্ত প্রধান ৬টি জাতির মধ্যে একটি জাতি হচ্ছে আসহাবুল আঈক্যা। যাদের আল্লাহ ধ্বংস করে দিয়েছিলেন।

তাদের আশ্রয়স্থল মরুময় ভূমি অনেকটা দেখতে জঙ্গলের মতো। এই অবাধ্য জনগোষ্ঠী প্রচণ্ড গরমে নিজেদের বসতি ছেড়ে পত্র-পল্লবিতে ঘেরা এই জঙ্গলে আশ্রয় নিয়েছিল। পাথর কেটে কেটে ঘরবাড়ি বানিয়েছিল তারা, যা কিনা আজও সাক্ষী হয়ে আছে ইতিহাসের পাতায় পাতায়। আল্লাহ তাদের সেখানেই ধ্বংস করে দেন। কেউ কেউ বলেন, এ অঞ্চলে আঈক্যা নামক গাছ ছিল, যে গাছের পূজা করার জন্য তাদের আসহাবুল আঈক্যা বলা হয়।

মন্তব্য করুন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্র রিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য বা বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বা বক্তব্য সংশোধনের ক্ষমতা রাখেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.