সমুদ্র থেকে বালি উত্তোলন ও বালুচরে ভরাট করার অভিযোগে ২টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা 

 

 

রামু প্রতিনিধি 

কক্সবাজারের পেঁচার দ্বীপে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালি উত্তোলন ও সমুদ্রবালুচরে ভরাট করার  অভিযোগে ২টি প্রতিষ্ঠানকে পৃথকভাবে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সাইফুল ইসলামের  নেতৃত্বে একটি টিম পেঁচার দ্বীপ সমুদ্র সংলগ্ন এলাকায় ঘটনাস্থল পরির্দশন করে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালি উত্তোলন করার দায়ে মীর আহমদ কোম্পানী নামে এক প্রতিষ্ঠানকে ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা ও সমুদ্রচর ভরাট করার দায়ে মারমেইড নামে আরেক প্রতিষ্ঠানকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানের নেতৃত্বদানকারী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সাইফুল ইসলাম জানান, সরকার কর্তৃক সমুদ্র তীরবর্তী এলাকাকে প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা (ইসিএ) হিসেবে ঘোষণা করা আছে। সেসব স্থানে নিয়ম মানা হচ্ছে না।

তিনি আরো জানান, জীববৈচিত্র্য রক্ষায় কাকড়া ও কাছিমের অবাধ বিচরণ, যেখানে প্যারাবন-ঝাউবন বিদ্যমান রয়েছে, উক্ত সংকটাপন্ন এলাকায় কাছিম ডিম পাড়ে, বিরল প্রজাতির কাকড়ার বিচরণ রয়েছে। ঠিক সে জায়গায় মীর আহমদ কোম্পানী সমুদ্র থেকে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করে ভরাট করে সরকারি জায়গা দখলে চেষ্টা করে এবং মারমেইড নামে এক প্রতিষ্ঠান মালিক সমুদ্রবালুচরে অবৈধভাবে ভরাট করার খবর পেয়ে সেখানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালি উত্তোলন করার দায়ে মীর আহমদ কোম্পানী নামে এক প্রতিষ্ঠানকে ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা ও সমুদ্রচরে অবৈধভাবে ভরাট করার দায়ে মারমেইড নামে আরেক প্রতিষ্ঠানকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করে বলে তিনি জানান।

এদিকে সমুদ্র সৈকতের সৌন্দর্য ও পরিবেশ রক্ষায় এসব অবৈধ কার্যক্রম বন্ধের জোর দাবি জানিয়েছেন জেলার সচেতন নাগরিকবৃন্দ।

Comments are closed.