সংসদে উচ্চকক্ষ প্রবর্তন করে কাকে খুশি করতে চান?

ওয়ান নিউজঃ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ভিশন-২০৩০-তে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতায় ভারসাম্য আনার যে প্রস্তাব আনা হয়েছে তার সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বুধবার রাতে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষ থেকে  এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, খালেদা জিয়া এ প্রস্তাবের মাধ্যমে কাকে খুশি করতে চান?

ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের ভৌগোলিক ও রাজনৈতিক অবকাঠামো অন্যান্য দেশের তুলনায় ভিন্ন। এই ভৌগোলিক ও রাজনৈতিক অবস্থানের কথা জেনেও সংসদে উচ্চকক্ষ প্রবর্তন করে কাকে খুশি করতে চান?

রাষ্ট্রপতির ক্ষমতায় বিষয়ে খালেদার বক্তব্যের সমালোচনা করে কাদের বলেন, রাষ্ট্রপতিকে তিনি কি সম্মান করবেন। তার আমলে তো রাষ্ট্রপতিকে অসম্মান করা হয়েছিল, সেটা জাতি ভুলে যায়নি।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া যে ভিশনের কথা বলেছেন, যা করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন; তার অনেকগুলো ইতোমধ্যে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাস্তবায়িত। অনেকগুলো চলমান।

কাদের বলেন, তিনি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, সুশাসনসহ অন্য যে বিষয়গুলো বলেছেন, সেসব তার মুখে শোনা জাতির জন্য সম্মানজনক নয়। কারণ বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান তো ইনডেমটিটি জারি করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধ করে দিয়েছিলেন।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের কথাও এবারও খালেদা জিয়া এড়িয়ে গেছেন। তিনি যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষে যে আছেন, সেটা তার অবস্থানের মাধ্যমেই স্পষ্ট।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.