শেষ পর্যন্ত হারই সঙ্গী হলো টাইগারদের

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের মুখ দেখেনি টাইগাররা।

ওয়ান নিউজঃ এক ম্যাচ হাতে রেখে তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। এর আগে তিন ওয়ানডে সিরিজেও সফরে থাকা বাংলাদেশকে হোয়াইওয়াশ করে কিউইরা।

বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ হওয়ায় ১৬ ওভারে বাংলাদেশের লক্ষ্য ১৪৮ রান। এই লক্ষ্য নিয়েই নেপিয়ারে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামেন দুই বাংলাদেশি ওপেনার লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈম। জয়ের জন্য ওভারপ্রতি ৯.২৫ রান দরকার বাংলাদেশের। দুই ওপেনার শুরুটাও করেন এই রানরেট মাথায় রেখে। কিন্তু ইনিংসের ১.৩ ওভার পর দুই আম্পায়ার এসে খেলা বন্ধ করেন। প্রথমে যে লক্ষ্য দেওয়া হয়েছে, সেটা নাকি ভুল! তবে সেটি যা–ই হোক নেপিয়ারের দ্বিতীয় টি–টোয়েন্টিতে শেষ পর্যন্ত ২৮ রানে হেরেছে বাংলাদেশ।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ব্যর্থতার পর সিরিজ বাঁচাতে নেপিয়ারে ঘুরে দাঁড়াতে চেষ্টা করেছিল বাংলাদেশ। আর তাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন সৌম্য সরকার। বহুদিন পর যেন খোলস খোলে বেরুলেন এই বামহাতি ব্যাটসম্যান। ওয়ানডে সিরিজে ব্যাটিং ব্যর্থতার পর প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন তিনি।

২৭ বলে ৫ চার ও ৩ ছয়ে খেললেন এক চমৎকার ঝড়ো ইনিংস। ২৫ বলে ফিফটি করে ম্যাচের রঙ পাল্টে দিয়েছিলেন সৌম্য। তার ব্যাটিংয়ে এক সময় জয়ের আশাও করে বাংলাদেশ। কিন্তু বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় আবারও ডুবলো টাইগাররা।

এমন সময় ধারাভাষ্য কক্ষে ছিলেন নিউজিল্যান্ডের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রস টেলর। তিনি বলছিলেন, ‘আমরা ক্রিকেটে অনেক কিছুই দেখি। কিন্তু অবশ্যই এমন কিছু কখনো দেখিনি।’ ঘরের বসে খেলা দেখছিলেন আরেক নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটার জিমি নিশাম। তিনিও সঠিক লক্ষ্য না জানিয়ে দুই দলকে খেলতে নামানোর সিদ্ধান্তে অবাক। টুইট করে তিনি লিখেছেন, ‘আপনি কীভাবে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেন লক্ষ্য না জেনে? অদ্ভুত বিষয়!’

১৬ ওভারে ১৭০ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে সৌম্য সরকারের ব্যাটে ভালোই এগোচ্ছিল বাংলাদেশ। সৌম্য নাঈমকে নিয়ে ৫২ বলে ৮১ রানের জুটি গড়ে কিউইদের চোখ রাঙিয়েছিলেন। সৌম্য ২৭ বলে ৫১ রান করে ফিরেছেন টিম সাউদির বলে মিলনের ক্যাচ হয়ে। নাঈম ৩৫ বলে করেছেন ৩৮। তবে এই জুটির পরপরই পথ হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ১২ বলে ২১ রান করে লড়াইটা কিছুটা জারি রাখেন। একের পর এক উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত হারই সঙ্গী দলের। বাংলাদেশ ১৬ ওভারে তুলতে পেরেছে ১৪২ রান।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.