শপথ নিলেন আলমগীর চৌধুরী ও নবনির্বাচিত কাউন্সিলরবৃন্দ

এম.মনছুর আলম :
কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভার দ্বিতীয় বারের মতো নবনির্বাচিত মেয়র আলমগীর চৌধুরী, সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলর ও সাধারণ আসনের কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) বেলা ১২টার দিকে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউস মিলনায়তনে মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। চকরিয়া পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ বাক্য পাঠ করান চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান এনডিসি।
উক্ত শপথ অনুষ্ঠানে এ সময় দ্বিতীয় বারের মতো শপথ নেন চকরিয়া পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক আলমগীর চৌধুরী। সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর হিসেবে শপথ নেন ১,২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের রাশেদা বেগম, ৪,৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ফারহানা ইয়াছমিন ফোরকান, ৭,৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের আঞ্জুমান আরা।
সাধারণ আসনে কাউন্সিলর হিসেবে শপথ নেন ১নম্বর ওয়ার্ডে এম নুরুস শফি, ২নম্বর ওয়ার্ডে সাইফুল ইসলাম হিমু, ৩নম্বর ওয়ার্ডে ইফতেখারুল ইসলাম হানিফ, ৪নম্বর ওয়ার্ডে জাফর আলম কালু, ৫নম্বর ওয়ার্ডে ফোরকানুল ইসলাম তিতু, ৬নম্বর ওয়ার্ডে আবদুস সালাম, ৭নম্বর ওয়ার্ডে নুরুল আমিন, ৮নম্বর ওয়ার্ডে মুজিবুর রহমান ও ৯নম্বর ওয়ার্ডে বেলাল উদ্দিন।
একইদিন চট্টগ্রাম সার্কিট হাউস মিলনায়তনে চকরিয়া পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলর ছাড়াও কক্সবাজার জেলার মহেশখালী পৌরসভা এবং ফেনী জেলার সোনাগাজী পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়র এবং কাউন্সিলদেরও শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
উল্লেখ্য, গত ২০ সেপ্টেম্বর কোন ধরণের সংঘর্ষ ছাড়াই প্রথমবারের মতো ইভিএম পদ্ধতিতে চকরিয়া পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান মেয়র আলমগীর চৌধুরী ২১৪৯০ ভোট পেয়ে বিশাল ব্যবধানে দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হন। এছাড়াও সংরক্ষিত আসনে ৩জন নারী কাউন্সিলর ও সাধারণ আসনে ৯ জন কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়। গত ২৬ সেপ্টেম্বর চকরিয়া পৌরসভায় নব নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নামে গেজেট প্রকাশিত হয়।

শপথ গ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী বলেন, সকলের সঙ্গে মিলে মিশে চকরিয়া পৌরসভাকে উন্নয়নয়ের মাধ্যমে সাজাতে চাই। আমি বিগত পাঁচটি বছর পৌরসভার মেয়র হিসেবে সাধারণ মানুষের দূরগোড়ায় সেবা দিতে বদ্ধপরিকর ছিলাম। কাজেই একটি মডেল পৌরসভায় রূপান্তরিত করতে উন্নয়ন কিভাবে করতে হয় তা জানা আছে।
প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে পৌরসভার মানুষের কাছে উন্নয়নের ধারা পৌঁছে দিতে আমি বদ্ধপরিকর। জনগণের কল্যাণের জন্য রাত-দিন কাজ করে চলেছি। এ ধারা অব্যাহত রাখতে চাই।
তিনি আরও বলেন, পৌর নাগরিকরা যাতে সেবা থেকে কোন রূপ ভোগান্তির শিকার না হন সে চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। এছাড়াও চলমান উন্নয়ন কর্মকান্ড আগামী কয়েক মাসের মধ্যে শেষ করা হবে। বিপুল ভোটের ব্যবধানে তাকে দ্বিতীয় বারের মতো মেয়র নির্বাচিত করায় পৌরবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.