রোহিঙ্গা হাশেম ডাকাত বন্দুকযুদ্ধে নিহত

বার্তা পরিবেশকঃ

টেকনাফের হ্নীলায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়কারী চক্রের হোতা এবং একই পরিবারের ৩ভাইকে গুলিবর্ষণ করে রক্তাক্ত করার মামলার প্রধান আসামী হাশেম উল্লাহ ডাকাত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। এসময় দুইজন র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছে।

সুত্র জানায়, ১৬জুলাই(শুক্রবার)ভোররাতে টেকনাফের হ্নীলা জাদিমোরা ২৭নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ের পাদদেশে ডাকাত দলের মধ্যে গোলাগুলির খবর পেয়ে র‌্যাব-১৫ এর একটি চৌকষ দল ঘটনাস্থলে গেলে ডাকাতদল র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এসময় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হলে আত্মরক্ষার্থে তারা পাল্টা গুলিবর্ষণ করে।

গোলাগুলির কিছুক্ষণ পর নিরুপায় হয়ে ডাকাতদল পাহাড়ের দিকে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ২৭নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি-ব্লকের বশির আহমদের পুত্র শীর্ষ ডাকাত হাশেম উল্লাহ (৩৩) কে ১টি দেশীয় তৈরী লম্বা বন্দুক,১টি বিদেশী পিস্তল,১টি ম্যাগজিন ও ৬রাউন্ড বুলেট উদ্ধার করে। এরপর আহত র‌্যাব সদস্য ও গুলিবিদ্ধ ডাকাতকে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। আহত র‌্যাব সদস্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর গুলিবিদ্ধ ডাকাতকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার রেফার করা হয়। সেখানে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ (সিপিসি-১) টেকনাফ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার এএসপি বিমান কুমার চন্দ্র কর্মকার এই সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেন।
এদিকে স্থানীয়রা জানায়, হাশেম উল্লাহর নেতৃত্বে দমদমিয়া ও জাদিমোরা ক্যাম্প ও আশেপাশের এলাকায় ডাকাতদের সংগঠিত করে সাম্প্রতিক সময়ে অপহরণ, মুক্তি বাণিজ্য, ডাকাতিসহ ইয়াবা লুটপাট চালিয়ে আসছে। গত ৩০জুন ভোররাত আড়াইটারদিকে উত্তর দমদমিয়ায় হাবিবুর রহমানের বাড়িতে গিয়ে তার পুত্র রহমত উল্লাহ, ছালামত উল্লাহ, মোহাম্মদ হাসানকে গুলিবর্ষণ করে প্রাণনাশের চেষ্টা চালায়। গুলিবিদ্ধরা এখনো চিকিৎসাধীন আছে। উক্ত মামলায় নিহত হাশেম উল্লাহ ডাকাত প্রধান আসামী। রোহিঙ্গা ডাকাত হাশেম উল্লাহ বন্দুকযুদ্ধে নিহতের খবরে সাধারণ রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের মধ্যে স্বস্তি দেখা দিয়েছে।

মন্তব্য করুন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্র রিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য বা বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বা বক্তব্য সংশোধনের ক্ষমতা রাখেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.