রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসন ভাসানচরেই

ওয়ান নিউজঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভাসানচরেই রোহিঙ্গাদের অস্থায়ীভাবে পুনর্বাসনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেছেন, যেসব সংস্থা সহযোগিতা করতে চায় তাদের সহযোগিতায় ভাসানচরে অস্থায়ী বাসস্থান গড়ে তুলে রোহিঙ্গাদের থাকার ব্যবস্থা করতে হবে। অন্য কোনো স্থানে এত মানুষের জায়গা দেয়া সম্ভব নয়।

সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক শেষে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে। বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ছাড়াও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রিপরিষদ সভা সূত্র জানায়, বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ের বিষয়ে কথা তোলেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভাসানচর ছাড়া রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসন করার মতো এত বড় জায়গা তো খালি নেই। বিভিন্ন দাতা সংস্থার সহযোগিতায় ভাসানচরে শেড নির্মাণ করে রোহিঙ্গাদের থাকার ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

মন্ত্রীদের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গারা মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অত্যাচার-নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে যখন বাংলাদেশে প্রবেশ করে সে সময় মিয়ানমার কয়েকবার বাংলাদেশের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে। তখন অনেকে আমাদের উসকানিও দিয়েছে। তখন যদি আমরা ধৈর্য না ধরতাম তাহলে আমাদের পক্ষে বিশ্বজনমত সংগঠিত হতো না।

তিনি বলেন, মানবতার কথা ভেবেই আমরা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছি। যে কারণে বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ বাহবাও পেয়েছে।

আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, মিয়ানমারের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক অব্যাহত থাকবে।

Comments are closed.