মূলধন বাড়লো সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা

লকডাউনে ঘুরে দাঁড়ালো শেয়ার বাজার

ডেস্ক নিউজ:
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। এই লকডাউন চলাকালে ভালো পারফরমেন্স দেখালো দেশের শেয়ার বাজার। প্রায় তিন মাস ধরে টানা পতনের কব্জায় থাকা শেয়ার বাজার ফের ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এতে প্রধান শেয়ার বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন বেড়েছে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা।

দেখা যাচ্ছে, গেল সপ্তাহে লেনদেন হওয়া চার কার্যদিবসের মধ্যে তিন কার্যদিবস শেয়ার বাজার ঊর্ধ্বমুখী ছিল। এর ফলে সপ্তাহজুড়ে দাম বাড়া প্রতিষ্ঠানের তালিকা বড় হয়েছে। সেইসঙ্গে বেড়েছে সবকটি মূল্যসূচক। পাশাপাশি লেনদেনের গতিও বেড়ে গেছে।

মূলধন বাড়লো ৩ হাজার ৫১৫ কোটি টাকা:
ডিএসই তথ্য বলছে, গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে ডিএসই’র বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৬২ হাজার ৭৫৪ কোটি টাকা, যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৪ লাখ ৫৯ হাজার ২৩৯ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসই’র বাজার মূলধন বেড়েছে ৩ হাজার ৫১৫ কোটি টাকা।

লকডাউনের মধ্যে মূলধন বেড়ে যাওয়া ও বাজার গতিশীল হওয়া প্রসঙ্গে বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান বিআইডিএসের গবেষক ড. জায়েদ বখত বলেন, ‘দীর্ঘদিন বাজার পতনের মধ্যে ছিল। এখন সেখান থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করছে। এতে লকডাউনের কোনও বিষয় নেই।’ তার মতে, বিনিয়োগবান্ধব শেয়ার বাজার হওয়া জরুরি।

এদিকে গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ৫৫ দশমিক ৪১ পয়েন্ট। অবশ্য আগের চার সপ্তাহ টানা এই সূচকটি কমেছিল। আগের চার সপ্তাহের টানা পতনে ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক কমেছে ৩১৪ দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্ট।

প্রধান মূল্যসূচকরে পাশাপাশি গত সপ্তাহজুড়ে বেড়েছে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক। গেল সপ্তাহে এই সূচকটি বেড়েছে ৩৬ দশমিক ৪৩ পয়েন্ট। আগের সপ্তাহে সূচকটি বাড়ে ৭ দশমিক শূন্য ৯ পয়েন্ট। অবশ্য তার আগের তিন সপ্তাহের টানা পতনে সূচকটি কমেছিল ১৭১ দশমিক ৩৭ পয়েন্ট।

অপরদিকে ইসলামী শরিয়াহ্ ভিত্তিতে পরিচালিত কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক গত সপ্তাহে বেড়েছে ১১ দশমিক ৪২ পয়েন্ট। এর আগের চার সপ্তাহ সূচকটির পতন হয়। এই টানা পতনে সূচকটি কমেছিল ৬৮ দশমিক ১১ পয়েন্ট।

সবকটি মূল্যসূচকের উত্থানের পাশাপাশি গত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন অংশ নেওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে ২১৭টি প্রতিষ্ঠান। দাম কমেছে ৯০টির এবং ৬০টি প্রতিষ্ঠানের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

ডিএসইতে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন ৫০৪ কোটি টাকা:
সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৫০৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয়েছে ৪৬৪ কোটি ৯২ লাখ টাকা। অর্থাৎ, প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন বেড়েছে ৩৯ কোটি ৮৮ লাখ টাকা।

গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ১৯ কোটি ২২ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ২ হাজার ৩২৪ কোটি ৬৩ লাখ টাকা। সেই হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে ৩০৫ কোটি ৪১ লাখ টাকা। মোট লেনদেন কমার কারণ গত সপ্তাহের এক কার্যদিবস কম লেনদেন হয়। -বাংলাট্রবিউন

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.