মহেশখালীতে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করলেন নৌকার প্রার্থী আবু হায়দার

কাইছারুল ইসলাম

মহেশখালী কুতুবদিয়ার সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি’র নির্দেশনায় পানিবন্দী রাজঘাটবাসীকে রক্ষা করতে মাতারবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, মাতারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জনাব এস.এম. আবু হায়দারের ব্যাক্তিগত উদ্যোগে পাইপ বসিয়ে পানি অপসারণের ব্যাবস্থা করেন। গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে উত্তর রাজঘাট বাজার এবং আশ-পাশের অর্ধশতাধিক বাড়িঘর পানিতে ডুবে যায়। এসময় তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়ান নৌকার প্রার্থী এস.এম আবু হায়দার। তিনি স্থানীয় জনসাধারণের সাথে কথা বলে এ সমস্যার কথা সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিকের কাছে তুলে ধরেন। দ্রুত সমাধানের নির্দেশনা পেয়ে উক্ত স্থানে ছুটে যান এবং আবু হায়দারের অনুরোধে স্থানীয় জনসাধারণ তাদের জায়গা ছেড়ে দিয়ে পাইপ বসানোর ব্যাবস্থা করে দেন।
তাঁর এ মহৎ উদ্যোগে স্থানীয় জনসাধারণ এবং ভুক্তভোগী সবাই আনন্দে আত্মহারা হন।
সরজমিনে গিয়ে জানা যায়,টানা কয়েকদিন বৃষ্টির ফলে মাতারবাড়ী রাজঘাট এলাকার প্রায় অর্ধশতাধিক বাড়িঘর পানিতে ডুবে যায় এবং তিন শতাধিক পরিবার পানি বন্দীতে ছিলেন। তাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি পানিতে ডুবে যায় ফলে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়। পানি বন্দী তিন শতাধিক পরিবারের দুঃখ লাঘবে এগিয়ে আসেন নৌকার মাঝি এস এম আবু হায়দার। তাদের এ সমস্যা থেকে উত্তরনের জন্য ভুক্তভোগীরা কক্সবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি ও মাতারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী এস.এম. আবু হায়দারের প্রতি ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তারা দ্ব্যর্থ কন্ঠে বলেন, তাঁদের সুখে-দুঃখে যাকে পাশে পায় আগামী ইউপি নির্বাচনে সেরকম একজনকেই রায় প্রদান করবেন।
এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ০৩ নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার আলহাজ্ব রিয়াজ উদ্দীন, মেম্বার পদপ্রার্থী ফোরকান আসিফ, আকতার হোসেন (টুডু মাঝি), মাস্টার আলা উদ্দিন ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ সহ জনসাধারণ

মন্তব্য করুন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্র রিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য বা বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বা বক্তব্য সংশোধনের ক্ষমতা রাখেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.