ভারত থেকে অবৈধভাবে প্রবেশ, সাতক্ষীরায় ১৩ দিনে আটক ৪৮

ডেস্ক নিউজ:
করোনার ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে সাতক্ষীরার তিনটি সীমান্তে বিজিবির অভিযানে ভারত থেকে অবৈধ পথে প্রবেশের সময় এক মানবপাচারকারীসহ সাত বাংলাদেশিকে আটক করেছে বিজিবি। মঙ্গলবার রাতে সদর উপজেলার ভোমরা, তলুইগাছা ও কলারোয়া উপজেলার মাদরা সীমান্ত থেকে তাদের আটক করা হয়। এ নিয়ে গত ১৩ দিনে তিন মানবপাচারকারীসহ ৪৮ জনকে আটক করেছে বিজিবি। জেলার বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে অবৈধ পথে মানুষ দেশে প্রবেশ করায় করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণের আতঙ্ক বাড়ছে সাধারণ মানুষের মাঝে।

আটক ব্যক্তিরা হলেন– কলারোয়া উপজেলার কেড়াগাছি গ্রামের মানবপাচারকারী মোফাজ্জেল (৩৫), মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার টেকেরহাট গ্রামের সাজিদ (৪৫), নড়াইল জেলার কালিয়া থানার আব্দুল্লাহ (২৮), যশোর জেলার মনিরামপুর থানার আয়রা বেগম (৫৫), পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর থানার রঘুনাথপুর গ্রামের মঞ্জুর খান (২৮), নড়াইল জেলার কালিয়া থানার কলসি গ্রামের রুহুল কাজী (৬৩) ও লোহাগড়া থানার দিঘলিয়া গ্রামের রহিমা বেগম (৪৫)।

সাতক্ষীরা ৩৩ বিজিবির ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আল মাহমুদ জানান, ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণ অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় ওই ভাইরাস বাংলাদেশে যাতে ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য ৩৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের আওতাধীন জেলার সাতটি সীমান্ত এলাকা স্পর্শকাতর হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে সীমান্ত কঠোর নজরদারিতে রাখা হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে অবৈধভাবে ভারত থেকে দেশে প্রবেশের সময় রাতে এক মানবপাচারকারীসহ সাত বাংলাদেশি নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, আটক ব্যক্তিদের সদর উপজেলার পদ্মশাখরা প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কলারোয়া উপজেলার সোনাবাড়ীয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্থাপিত কোয়ারেন্টিন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। কোয়ারেন্টিন শেষে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা জন্য সংশ্লিষ্ট থানায় সোপর্দ করা হবে।

মন্তব্য করুন

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্র রিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোন মন্তব্য বা বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোন ধরনের আপত্তিকর মন্তব্য বা বক্তব্য সংশোধনের ক্ষমতা রাখেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.