ভারত ছাড়ছেন বলিউড তারকারা

ডেস্ক নিউজ:
ভারতের করোনা পরিস্থিতি খুবই জটিল আকার ধারণ করেছে। টানা দুই দিন দৈনিক সংক্রমণ ছাড়াল তিন লক্ষাধিক। এমন অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন শাহরুখ খানের স্ত্রী গৌরী খান এবং তার ছেলে আরিয়ান। শাহরুখের মেয়ে সুহানা নিউইয়র্কে পড়াশোনা করেন, সেখানেই চলে গেছেন দুজন। ভারতে করোনা মহামারীর সংক্রমণ মারাত্মকভাবে ছড়িয়ে পড়ায় নিজেদের সুরক্ষার জন্য বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের পরিবার মুম্বাই ছেড়ে যান। নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার কারণে আগে থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে আছেন মেয়ে সুহানা খান। গত বুধবার রাতে নিউইয়র্কের উদ্দেশে মুম্বাই ত্যাগ করেন শাহরুখ খানের স্ত্রী গৌরী খান ও ছেলে আরিয়ান খান। সেখানে মেয়ে সুহানা খানের অ্যাপার্টমেন্টে থাকবেন তারা। গৌরী, আরিয়ান, সুহানা নিউইয়র্ক থাকলেও এখনো মান্নাতে অবস্থান করছেন আব্রাম খান ও শাহরুখ খান। তাদের পরিবারের সঙ্গে একত্রিত হওয়ার বিষয়টি এখনো স্পষ্ট নয়। তবে এ ঘটনাকে ‘পালানো’ মনে করছেন নেটিজেনরা। তারা বলছেন, দেশের খারাপ সময়ে তারা পালাচ্ছেন। শাহরুখ খান বলিউডের ইতিহাসে সব থেকে জনপ্রিয় অভিনেতা। পৃথিবীতেই তার অনুগামী ছড়িয়ে আছে। কিন্তু করোনায় তার স্ত্রী-পুত্রকেও ট্রোল করা ছেড়ে দেননি ভক্তরা।

মালদ্বীপে রণবীর-আলিয়া
এই মুহূর্তে বলিউডের সবচেয়ে আলোচিত জুটি রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাট। এ জুটি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে এখন তারা করোনামুক্ত। নেগেটিভ হওয়া মাত্রই রণবীর-আলিয়া পাড়ি জমান মালদ্বীপে। মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের করোনা কারফিউয়ের মধ্যেই বিমান ধরেছেন তারা। দুজনের পরনে সাদা পোশাক। শোনা যাচ্ছে, অবসর কাটাতে গন্তব্য হিসেবে তারাও মালদ্বীপকে বেছে নিয়েছেন। সম্প্রতি রণবীর কাপুর প্রেমিকা আলিয়া ভাটের সঙ্গে ‘ব্রহ্মাস্ত্র’ সিনেমার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছিলেন। এ ছাড়া ‘গাঙ্গুবাই কাঠিয়াবাড়ি’র কেন্দ্রীয় ভূমিকায় রয়েছেন আলিয়া ভাট। এটির পরিচালনায় রয়েছেন সঞ্জয় লীলা বানসালি।

 

মালদ্বীপ ভ্রমণে টাইগার-দিশা
মহামারী করোনা আতঙ্কের মধ্যেও অবসর কাটাতে মালদ্বীপে বিলাসভ্রমণে গেছেন দিশা পাটানি ও টাইগার শ্রফ। জানা গেছে, কাজ থেকে ছুটি নিয়ে নীলজলের দেশে ছুটি কাটাতে গেছেন তারা। এদিকে মালদ্বীপে পা রেখে উচ্ছ্বাস ধরে রাখতে পারেননি দিশা পাটানি। ইনস্টাগ্রামে একের পর এক স্টোরি পোস্ট করছেন তিনি। কখনো সমুদ্রতটে রোদ স্নান, কখনো আবার খয়েরি বিকিনিতে সেখানেই বসে ছবি তুলে উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন দিশা। তবে এখন পর্যন্ত দিশার কোনো ছবিতেই টাইগারকে দেখা যায়নি। বাইরে ঘুরতে গিয়ে একসঙ্গে ছবি পোস্ট না করার চর্চা এবারও জারি রেখেছেন তারা। তবে টাইগারের নিজের প্রোফাইলেও মালদ্বীপে অবকাশ যাপনের কোনো ছবি নেই। বরং মহামারীর সময় মানুষকে বাড়িতে থাকার উপদেশ দিয়ে একটি স্টোরি পোস্ট করেছেন অভিনেতা। তিনি সবাইকে বাইরে বের হলে মাস্ক পরার আবেদন জানিয়েছেন। পাশাপাশি, যারা এখনো মহামারীর ভয়াবহতা বুঝতে পারছেন না, তাদের পুরো বিষয়টি বুঝিয়ে বলার আহ্বানও দিয়েছেন টাইগার।

 

ছুটি কাটাতে পরিবারসহ বাইরে নবাবকন্যা সারা আলী খান
রাজ্য সরকারগুলোর লকডাউন ঘোষণা করতেই ছুটি কাটাতে মালদ্বীপ পাড়ি দিয়েছেন সারা আলী খান। সেখান থেকেই ইনস্টাগ্রামে একের পর এক ছবি পোস্ট করতে দেখা যাচ্ছে সাইফ আলী খানের মেয়েকে। সমুদ্র মাঝে নিজেকে একের পর এক ভিন্ন আঙ্গিকে প্রকাশ করছেন নবাব বংশের এই কন্যা। মালদ্বীপের সৈকতে ‘ভেনি ভিদি আমাভি’ ব্র্যান্ডের মনোকিনিতে দেখা যায় সাইফ-অমৃতা কন্যা সারাকে। পোস্ট করা ছবিতে দেখা যায়, আকাশি মনোকিনিতে সৈকতে খালি পায়ে দাঁড়িয়ে সারা। চোখে দামি রোদ চশমা। পাশে খোলা চটি। ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখেছেন-‘উপরে আকাশ, নিচে বালি’। মালদ্বীপে গিয়ে সারা যে বিকিনি পরেছেন, তার মূল্য নাকি ৫২ হাজার টাকা। স্বভাবতই খানিকটা মন্দ সময় যাচ্ছে নবাববাড়ির কন্যা আলী খানের। মনে সেই বেদনা নিয়েই উড়ে গেছেন মালদ্বীপ। তবে একা যাননি, ভাই ও মা অমৃতাকেও সঙ্গে নিয়ে গেছেন সারা।

 

ছুটি কাটাচ্ছেন শ্রদ্ধা-জাহ্নবী
প্রথম সারির অনেক তারকা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। অনেকে করোনার কারণে মুম্বাই ছেড়েছেন। এর মধ্যে শ্রদ্ধা কাপুর, জাহ্নবী কাপুর, রোহন শ্রেষ্ঠাসহ অনেকেই ছেড়েছেন মুম্বাই। তারা মালদ্বীপ বা গোয়াতে ছুটি কাটাচ্ছেন। তাদের নানান মুহূর্তের রঙিন ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

 

বিলাসভ্রমণ নিয়ে শ্রুতির ক্ষোভ
করোনাকালে বলিউড তারকাদের বিলাসভ্রমণ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে আলোচনায় দক্ষিণ তথা বলিউড অভিনেত্রী শ্রুতি হাসান। দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে মালদ্বীপ বা গোয়া সফর নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন। এমনকি এ নিয়ে তিনি রীতিমতো সমালোচনা করেছেন ও বেজায় চটেছেন নেটিজেনরা। তাদের প্রশ্ন, দেশবাসীর এ অসহায়তার সময় তারা কী করে ছুটির মেজাজে আছেন। খ্যাতনামা লেখিকা শোভা দে এ বিষয়কে ঘিরে আগেই নিন্দা প্রকাশ করেছেন। এক সাক্ষাৎকারে শ্রুতি হাসান বলেন, ‘আমি কাউকে বিচার করতে চাই না। কিন্তু দেশে মহামারীর প্রকোপ ক্রমেই বেড়ে চলেছে। দেশজুড়ে মানুষের আর্তনাদ। দেশের এ অস্থির সময় ছুটি কাটানো ‘অসংবেদনশীল’। তিনি আরও বলেছেন, ‘আমি খুশি যে ওরা ছুটি কাটাতে গেছে। ওদের এই অধিকার আছে। কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি যে এটা সঠিক সময় নয়, মাস্ক ছাড়া আপনি পুলে যাবেন। সমুদ্রতটে আপনি হইহুল্লোড় করবেন। আমাদের সবার জন্য এক কঠিন সময়।’ কমল হাসানকন্যা শ্রুতি বলেছেন, তার বন্ধুরা অনেক ভ্রমণের পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু তিনি না করে দিয়েছিলেন। কারণ এই দক্ষিণী নায়িকা এ ধরনের ভয়াবহ পরিস্থিতি আগেই আশঙ্কা করেছিলেন। তখন তাঁকে অনেকে ‘পাগল’ বলে উপহাস করেছিলেন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.