বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় বিসিবির পরিচালক নির্বাচিত হচ্ছেন আকরাম ও নাসিরের

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা:
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচনে পরিচালক পদে চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার প্রতিনিধিত্ব করছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান। এই নির্বাচন তাদের বিরুদ্ধে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে পারেন।

আগামী ৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচন।

এতে মনোনয়নপত্র দাখিল করা হবে ২৭ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই ও তালিকা প্রকাশ হবে ২৮ সেপ্টেম্বর। আপিল গ্রহণ ও শুনানি ২৯ সেপ্টেম্বর।

মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টার মধ্যে। ভোট গ্রহণ চলবে ৬ অক্টোবর সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ হবে ৭ অক্টোবর বিকেল ৩টায়।

এবারের বিসিবি পরিচালক পদের তিন ক্যাটাগরিতে সবমিলিয়ে ২৩টি পদের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে পরিচালক ক্যাটাগরি ১, ক্যাটাগরি ২, ক্যাটাগরি ৩ যথাক্রমে পদের সংখ্যা ১০টি, ১২টি এবং ১টি।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে আ জ ম নাছির আর আকরাম খানের বিপক্ষে কারো প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার সম্ভাবনা কম। এখন পর্যন্ত তাদের বিপক্ষে কেউ মাঠে নামেননি। তাদের বিপক্ষে নতুন প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনাও খুব কম।

এদিকে বোর্ডে থাকা অন্য তিন সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান, খালেদ মাহমুদ সুজন আর নাইমুর রহমান দুর্জয় এবারও প্রার্থী। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, আকরাম খান ও খালেদ মাহমুদ সুজন আগের বারের মতো এবারও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

আর ক্যাটাগরি ৩ মানে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক, সাবেক ক্রিকেটার, সব সার্ভিসেস, বিশ্ববিদ্যালয়, শিক্ষা বোর্ড, বিকেএসপি, কোয়াব ও আম্পায়ার্স বোর্ডের কাউন্সিলরদের মধ্য থেকে খালেদ মাহমুদ সুজনের এবারও পরিচালক পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে আসার সম্ভাবনা উজ্জ্বল।

তবে আরেক পরিচালক নাইমুর রহমান দুর্জয়কে এবারও নির্বাচনে লড়তে হতে পারে। কারণ ক্যাটাগরি ১’এ ঢাকা বিভাগে বর্তমান বোর্ড পরিচালক দুর্জয় আর সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু ছাড়াও ঢাকা বিভাগ থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তানভির আহমেদ টিটু নির্বাচন করবেন।

নাইমুর রহমান দুর্জয় এখন দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। ২৬ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে দুর্জয় নিজেই মনোনয়নপত্র জমা দেবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে খালেদ মাসুদ পাইলটকেও নির্বাচনী বৈতরণী পাড়ি দিয়েই বোর্ডে আসতে হবে। তার প্রতিপক্ষ বর্তমান বোর্ড পরিচালক ও পাবনা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.