বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন বহুদলীয় গণতান্ত্রিক সভ্যতা -ড.আরেফিন সিদ্দিক

ইমাম খাইর:
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ও জাতীয় জাদুঘর ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি ডক্টর আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন বহুদলীয় গণতান্ত্রিক সভ্যতা। তিনি যে স্বপ্ন নিয়ে একটি স্বাধীন দেশ দিয়ে গেছেন, সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শুধু বাঙালির বন্ধু ও অধিনায়ক ছিলেন না, তিনি ছিলেন মানবজাতির পথপ্রদর্শক ও মহান নেতা। তাছাড়া বঙ্গবন্ধুর উৎসাহ শুধু রাজনৈতিক স্বাধীনতাতেই সীমাবদ্ধ ছিল না, তিনি চেয়েছিলেন বহুদলীয় গণতান্ত্রিক সভ্যতা, সর্বজনীন শিক্ষাব্যবস্থা, সব মানুষের মানবাধিকারের স্বীকৃতি। তার সাবলীল চিন্তাধারার সঠিক মূল্য শুধু বাংলাদেশ নয়, সমস্ত পৃথিবীও স্বীকার করবে এ আশা আমাদের আছে এবং থাকবে।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকালে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে ‘পদক্ষেপ বাংলাদেশ’র উদ্যোগে ২দিনব্যাপী আয়োজিত মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ‘বিশ্বজুড়ে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আরেফিন সিদ্দিক বলেন, নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাংলাদেশের মুক্তির আন্দোলনের নেতৃত্বের মধ্যে শেখ মুজিবের বিশাল মহিমার একটি প্রকাশ যেমন আমরা দেখতে পাই, তার মহামানবতার আরেকটি পরিচয় আমরা পাই তার চিন্তাধারার অসাধারণতায়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মনিরুল আলম, টেলিযাগোযাগে নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যামসুন্দর সিকদার, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন।

বক্তব্য দেন- পদক্ষেপ বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বাদল চৌধুরী, কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বিভীষন কান্তি দাশ, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের সভাপতি মিজানুর রহমান, কক্সবাজার সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক নজিবুল ইসলাম, পদক্ষেপ বাংলাদেশ’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জান্নাতুন নিসা, পদক্ষেপ বাংলাদেশ কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি তোফায়েল আহমদ, সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সেলিম, কক্সবাজার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনান, কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের পরিচালক মং এ খেইন।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.