প্লাষ্টিক শিল্পের প্রসারে ঝিনাইদহ থেকে উধাও হচ্ছে বাঁশ ও বেতের তৈরী সামগ্রী

জাহিদুর রহমান তারিক,প্রতিনিধি ঝিনাইদহঃ

দেশে এক সময় বাঁশ ও বেতের তৈরী নানা সামগ্রীর ব্যাপক চাহিদা ছিল কিন্তু দিন দিন সেই চাহিদার স্থানটি চলে যাচ্ছে সহজলভ্য প্লাষ্টিক পন্যের দখলে। এক দিকে বাঁশ ও বেতের উৎপাদন কমে যাওয়া অন্য দিকে ক্রমবর্ধমান প্লাষ্টিক শিল্পের প্রসার এর অন্যতম কারন। তাছাড়া ঝিনাইদহ জেলায় কোন প্রতিষ্ঠান থেকেই বাঁশ ও বেত উৎপাদনে সংশ্লিষ্ট কৃষকদের কোন পরামর্শ বা উৎসাহ দেয় না। ফলে নানা কারনেই ঝিনাইদহ থেকে বাঁশ ও বেতের শিল্পটি হারিয়ে যাচ্ছে। ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে এক সময় বাঁশ ও বেতের বিভিন্ন সামগ্রী তৈরীর সঙ্গে বহু মানুষ জড়িত ছিল। বর্তমানে অনেকেই অন্য পেশা বেছে নিতে বাধ্য হচ্ছেন ।

 

অনেকেই তাদের পূর্ব পুরুষের এ পেশা আকড়ে ধরে রাখার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হচ্ছেন ফলে মানবতার জীবনে বাধ্য হচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা জানান, এক সময় ঘরবাড়ী তৈরী করতে ৪০/৫০ টা বাঁশ ব্যবহার হতো এখন বাড়ী তৈরী করতে বাঁশের জায়গা দখল করে নিয়েছে সিমেন্টের খুটি। শৈলকুপার ঋষি পাড়ার হরেন দাস জানান, ১টা তল্লা বাঁশ কিনতে ৮০/৯০ টাকা লাগে কিন্তুু পাওয়া দুস্কর। একটা বাঁশ দিয়ে ৭/৮ টা কুলা তৈরী হয়। প্রতি কুলা ৫০ টাকা বিক্রয় হয় তিনি জানান। পরিকল্পিত ভাবে বাঁশ ও বেতের আবাদ না হলে ভবিষ্যতে এই কুটির শিল্প হারিয়ে যাবে বলেও তিনি জানান।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.