নিখোঁজের এক দিন পর শার্শার শাখা নদী থেকে কৃষকের লাশ উদ্ধার

ইয়ানূর রহমান : যশোরের শার্শায় নিখোঁজের এক দিন পর বেতনা নদীর শাখা খাল থেকে নাসির উদ্দন (৪৫) নামে এক কৃষকের লাশ উদ্ধার করেছে খুলনা ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল। শনিবার সকাল সাড়ে ৯ টায় উপজেলার নারায়নপুর গ্রামের মন্দির সংলগ্ন বেতনা নদীর শাখা খাল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে নিখোঁজ হয় নাসির উদ্দন নামের এই ব্যক্তি। এসময় সম্ভাব্য সব জায়গায় নাসির উদ্দনের পরিবার ও বেনাপোল ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট সেখানে তল্লাশী চালালেও তার কোন সন্ধান না পেয়ে খুলনা ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি ইউনিটের সরনাপন্ন হয় উপজেলা প্রশাসন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সোহারাব হোসেন জানান, শুক্রবার সকালে নাসির উদ্দীন বেতনা নদী থেকে কচুরিপানা তোলার কাজ করছিলেন। কাজের যে কোন এক সময় তিনি পানির তলে ডুবে যান। তারপর থেকে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলনা। শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রশাসনসহ বেনাপোল ফাঁয়ার সার্ভিসের কর্মীরা নির্ধারীত জায়গা পরিদর্শন করেন এবং খুলনা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে অবহিত করলে শনিবার সকালে ডুবে যাওয়া স্থান থেকে মাত্র ১০ গজ দূরে কচুরিপানার নিচ থেকে মরদেহটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন।

নিহত নাসির উদ্দিন শার্শার বিত্তিবারিপোতা গ্রামের জয়নুদ্দীনের ছেলে। সম্প্রতি তিনি নারায়নপুর গ্রামের মন্দিরের পশ্চিম পাশে খাল পাড়ে একটি টিনের চালের একটি বাড়ি করেছেন। তার স্ত্রী ৩ পুত্র সন্তান রয়েছে।

এসময় খুলনা ফায়ার সার্ভিস ও ডুবুরি দলের সাব অফিসার মোশাররফ হোসেন, টিম লিডার সাইদুল ইসলামসহ বেনাপোল ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের বেনাপোল স্টেশন কর্মকর্তা রতন কুমার দেবনাথ বলেন, গতকাল এক ব্যক্তি বেতনা নদীতে ডুবে গেছে এমন খবর পেয়ে সন্ধ্যায় আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে খোঁজাখুঁজি করি। না পেয়ে বিষয়টি খুলনা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলকে অবহিত করলে আজ সকালে তাদের সমন্বয়ে মাত্র ২৫ মিনিট তল্লাশী করে মরদেহটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে তিনি পানিতে ডুবেই মৃত্যু বরণ করেছেন। হত্যার কোন আলামত পাওয়া যায়নি।

এদিকে, নাসির উদ্দিনের মৃতদেহ উদ্ধারের পরপরই শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা, শার্শা থানা ইনচার্য বদরুল আলম, শার্শা সদর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান কবির উদ্দিন তোতা, শার্শা সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোরাদ হোসেন উপস্থিত হয়।

এ সময় উপজেলা প্রশাসন ও শার্শা সদর ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে শীত বস্ত্র ও আর্থিক সহযোগীতা করা হয় নাসির উদ্দিনের পরিবারকে।

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়.