দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে বাংলাদেশ-মিয়ানমার কর্মকর্তারা

ওয়ান নিউজ ডেক্সঃ বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের বৈঠক শুরু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে মিয়ানমারের রাজধানী নাইপেদোর হরিজন লেকভিউ রিসোর্টে দ্বি-পাক্ষিক এই বৈঠক শুরু হয়ে শেষ হয় দুপুর ১২টায়।এরপর বেলা ২টা-৪টা পর্যন্ত সেদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কনফারেন্স রুমে দুই দেশের ‘সিকিউরিটি অ্যান্ড ল ইনফোর্সমেন্ট’ সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক সই হবে।

জ্যেষ্ঠ কর্মকতাদের (সিনিয়র অফিসিয়ালস) বৈঠকে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন এবং মিয়ানমারের ১৬ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সেদেশের স্বরাষ্ট্র সচিব ইউ টিন মায়েন্ট।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ আহমেদ অপু এ তথ্য জানিয়েছেন।এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সোমবার বিকেলে মিয়ানমারে পৌঁছান। তার সঙ্গে আছে ১২ সদস্যের প্রতিনিধি দল।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে নাইপেদো বিমানবন্দরে মন্ত্রীকে স্বাগত জানান মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মেজর জেনারেল অং সয়ি।মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ‌স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের দুই বিভাগের সচিব ছাড়াও বিজিবি প্রধান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মহাপরিচালক, পুলিশ প্রধান, কোস্টগার্ড প্রধান ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালকসহ ১২ সদস্যের প্রতিনিধি দল রয়েছে।

মিয়ানমার যাওয়ার আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে দেয়ার বিষয়টি হবে প্রধান আলোচ্য।’আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, মিয়ানমার সরকারের আমন্ত্রণে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল দেশটি সফরে যাচ্ছে। প্রতিনিধিদলটি ২৫ অক্টোবর দেশে ফিরবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা আলোচনার মাধ্যমে সকল অমীমাংসিত সমস্যার সমাধান করতে চাই এবং আলোচনায় রোহিঙ্গা ইস্যুটিও স্থান পাবে।’স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, অনেক বছর আগে মিয়ানমার ৫ লাখ রোহিঙ্গা নাগরিক বাংলাদেশে এসেছিল এবং সম্প্রতি মিয়ানমার থেকে আরো ৫ লাখেরো বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এসেছে।

Comments are closed.